Home লাইফস্টাইল ত্বকের কোমলতায় গাজরের ব্যবহার

ত্বকের কোমলতায় গাজরের ব্যবহার

সুন্দর ত্বক কিংবা চুলের জন্য বেশ উপকারী একটি উপাদান হল গাজর। গাজরে বিদ্যমান ভিটামিন এ, ডি এবং কে একসাথে শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিডেন্টের কাজ করে। গাজরে আরও রয়েছে বেটা-ক্যারোটিন, এটি ত্বকের মৃত চামড়া তুলে ফেলে এবং ত্বক প্রাকৃতিকভাবে ময়েশ্চারাইজড করে। এছাড়াও গাজর ত্বক উজ্জ্বল করার পাশাপাশি রোদে পোড়া দাগ এবং বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে। গাজরে বিদ্যমান আন্টিঅক্সাইড মুখে বয়সের ছাপকে দূরে রাখে এবং ত্বকের ক্ষতি হওয়া থেকে রক্ষা করে। যেকোনো ধরনের ত্বক ও চুলের ক্ষেত্রে গাজর ব্যবহার করা যায়। গাজর মুখের ক্ষতিকর টক্সিনকে দূর করে ত্বক সতেজ রাখতে সাহায্য করে। আজ আমরা জানবো ত্বকের কোমলতায় গাজরের ব্যবহার সম্পর্কে-

ত্বককে কোমল করতে গাজর এর ভুমিকা অনেক। এক্ষেত্রে ২ টি ফ্রেশ গাজর নিয়ে এতে ১ টেবিল চামুচ কাচা দুধ, ১ টেবিল চামুচ মধু, ও কয়েক ফোটা অলিভ অয়েল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এইবার ফেইস ওয়াস দিয়ে মুখ ধুয়ে এই পেস্ট সম্পুর্ন মুখে লাগিয়ে নিন। ১৫ থেকে ২০ মিনিট পর এটাকে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার ত্বক হাইড্রেট হবে এবং ত্বকে আসবে প্রাকৃতিক কোমলতা।

সেদ্ধ করা গাজরকে ব্লেন্ড করে এর সাথে কয়েক ফোটা লেবুর রস, ১ টেবিল চামুচ মধু ও কয়েক ফোটা অলিভ ওয়েল মিশিয়ে মিশ্রন তৈরী করুন। এবারভ এটাকে সম্পূর্ণ মুখে, ঘাড়ে এবং গলায় লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। ২০ মিনিট পর কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার ত্বকে স্বাভাবিক উজ্জল্য আসবে।

মুখের বলিরেখা দূর করতে গাজরের রস ভালো টোনার হিসেবে কাজ করে। একটা গাজরকে পেস্ট করে মুখে লাগিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। রোদে পোড়া দাগ দূর করতে গাজর এর সাথে আলু পেস্ট করে মুখে লাগালে উপকার পাওয়া যায়।

ফ্রেশ গাজরের রস এর সাথে গোলাপ জল মিশিয়ে এটাকে বোতলে সংরক্ষন করুন। এবার এটাকে স্প্রে বোতলে ভরে মুখে ব্যাবহার করুন। এটা মুখের যেকোনো ড্যামেজ সারাতে সাহায্য করবে।

ত্বকের কোমলতা বজায় রাখতে দুই টেবিল চামচ গুঁড়ো দুধের সাথে এক টেবিল চামচ গাজরের রস মিশিয়ে পেস্ট বানান। পেস্টটি আধঘণ্টা ত্বকে লাগিয়ে রেখে স্ক্রাব করে ধুয়ে নিন। ত্বক উজ্জ্বল ও কোমল করতে সপ্তাহে দুইদিন প্যাকটি ব্যবহার করুন।

শুষ্ক ত্বকের যত্নে সমপরিমাণ শসা এবং গাজরের রস মিশিয়ে এরসঙ্গে দশ ফোঁটা আমন্ড অয়েল দিন। মিশ্রণটি চক্রাকারে ত্বকে পাঁচ মিনিট ম্যাসাজ করে ১৫ মিনিট পর কুসুম গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন। সমপরিমাণ বেসন ও গাজরের রস এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মেশান। বাটার মিল্ক মিশ্রণে এটি দিয়ে ভালো করে ফেটিয়ে নিন। ফেসপ্যাকটি ত্বকে পাতলা করে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে স্ক্রাব করে ধুয়ে নিন। ত্বকের অতিরিক্ত তেল দূর করে এটি।