১ উইকেট হাতে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার লিড ৭২

১ উইকেট হাতে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার লিড ৭২

SHARE
Australia lid 72 run with 1 wicket

বাংলাদেশের দেয়া ৩০৬ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ওয়ার্নার, স্মিথ ও হ্যান্ডসকম্বের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে শক্ত অবস্থানে পৌঁছে যায় অস্ট্রেলিয়া। তৃতীয় দিন দুটি সেশনে ১৫২ রান যোগ করেছে অস্ট্রেলিয়া। ৯ উইকেটে ৩৭৭ রান করেছে সফরকারীরা। এতে ১ উইকেট হাতে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার লিড ৭২ রান।

তৃতীয় দিনের শুরু থেকে দাপট দেখায় বৃষ্টি। নির্ধারিত সময়ে শুরু হতে পারেনি তৃতীয় দিনের খেলা। তবে বৃষ্টির তেজ কমার পর তিন ঘন্টা পর খেলা শুরু হয় তৃতীয় দিনের। ওয়ার্নার ও হ্যান্ডসকম্বের জমে উঠা জুটি ভাঙ্গতে বোলারদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে ব্যবহার করেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। কিন্তু তাতেও কাজ হচ্ছিলো না। অবশেষে সাকিব আল হাসানের হাত ধরেই ভাঙ্গল ওয়ার্নার-হ্যান্ডসকম্ব জুটি। বল হাতে আক্রমণে আসেননি সাকিব। ফিল্ডার হিসেবেই সরাসরি থ্রোতে নন-স্ট্রাইকের উইকেট ভেঙ্গে হ্যান্ডসকম্বকে বিদায় দেন সাকিব। এতে ওয়ার্নারের সঙ্গে তার দেড় শতাধিক রানের জুটি ভাঙে।

এরপর ম্যাক্সওয়েলকে সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে যান ওয়ার্নার। তারা এগুচ্ছিলেনও বেশ। তবে তাদের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ান বাংলাদেশ পেস সেনসেশন মুস্তাফিজুর রহমান। দলীয় ২৯৮ রানে পথের কাঁটা হয়ে থাকা ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে ২২তম জন্মদিনের উৎসব করেন কাটার মাস্টার। ইমরুল কায়েসের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে বাংলাদেশকে বেশ ভোগান অজি ওপেনার। শেষ পর্যন্ত ২৩৪ বলে ৭ চারে ১২৩ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন তিনি।

Australia lid 72 run with 1 wicket

এরপর অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসে আর কোন ব্যাটসম্যান বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। তবে বাংলাদেশের স্কোরকে টপকে দলকে লিড এনে দিয়েছেন পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা। ৯ উইকেটে ৩৭৭ রান তুলে দিন শেষ করে অসিরা। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ৩৮, অ্যাস্টন অ্যাগার ২২ ও হিল্টন কার্টরাইট ২২ রানে ফিরেন। স্টিভ ও’কেফি ৮ ও নাথান লায়ন শূন্য রানে অপরাজিত আছেন।

LEAVE A REPLY