হৃদরোগ নিরাময় করবে বাদাম

হৃদরোগ নিরাময় করবে বাদাম

SHARE
china-pea

হৃদরোগ বর্তমানে আমাদের দেশের জন্য একটি অন্যতম রোগে পরিণত হয়েছে। আমাদের দেশে মোট রোগী সংখ্যার ৫০% এরও বেশি লোক হৃদরোগে ভুগছেন শুধুমাত্র খাওয়া দাওয়ার অনিয়ম এবং দুশ্চিন্তার কারণে। হরহামেশাই যেতে হচ্ছে ডাক্তারের কাছে রোগমুক্তির আশায়। আর এর ফলে ভাগ্যে মিলছে বিভিন্ন উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ওষুধ। যা হৃদরোগের প্রকটতা কিছু কমালেও অনেকের ক্ষেত্রে তা বিরাট প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে। কিন্তু আশ্চর্যজনক হলেও সত্য যে, খাদ্যাভ্যাসে সামান্য পরিবর্তন আনলে আমরা এ ধরনের প্রতিক্রিয়া ও হৃদরোগ থেকে রক্ষা পেতে পারি। এমনই একটা খাদ্য উপাদান হচ্ছে বাদাম।

বহু প্রাচীনকাল থেকেই হৃদরোগের জন্য চীনাবাদাম একটি অন্যতম প্রাকৃতিক ওষুধ হিসেবে ব্যবহার হয়ে আসছে। গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত বাদাম খেলে হৃদরোগের ঝুঁকি অনেকটাই কমে আসে। তবে আমন্দ, কাজু প্রভৃতি বাদামও হৃদ মুক্তির কাজ করে। তবে এগুলো একটু ব্যয়বহুল হওয়ায় আমাদের রোজাকার খাদ্যে চীনাবাদামই অনেকটা সহজলভ্য এবং গুনগত মানেও যথেষ্ট ভালো।

আমাদের দেশে বাদাম অনেকটাই সহজলভ্য। তাই প্রতিদিন দুপুর কিংবা রাতের মেন্যুতে মাছ, মাংসের পাশাপাশি বাদাম রাখুন। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক গবেষকদের সমন্বয়ে বিজ্ঞানী দল তাদের গবেষণায় দারুণ সব তথ্য দিয়েছেন। তাদের মতে, যারা প্রতিদিন নূন্যতম ২৮ গ্রাম বা তিন আউন্স করে বাদাম খাদ্য তালিকায় রাখেন, তাদের হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোকসহ আরও কিছু কার্ডিওভাস্কুলার ব্যাধির ঝুঁকি কমে যাচ্ছে। এছাড়াও ধূমপায়ী ব্যক্তি, মাদকাসক্ত, ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ, বাড়তি ওজনের লোক সবার ক্ষেত্রেই বাদাম সমান কাজ করে।  

হৃদরোগ নিয়ন্ত্রণে বাদাম জেভাবে কাজ করেঃ আমাদের দৈনন্দিন খাবার গ্রহণের পর রক্তের লিপিডগুলোতে এক ধরনের ফ্যাট জমে। এই ফ্যাট এভাবে জমতে থাকলে একদিন রক্তের ধমনী ব্লক হয়ে হার্ট ডিজিসে পরিণত হবে। কিন্তু যদি আমাদের প্রাত্যাহিক খাদ্য তালিকায় আমরা বাদাম রাখি তাহলে তা সেই ফ্যাটকে কাটাতে ভূমিকা রাখে। স্বাস্থ্যবান লোকদের ক্ষেত্রে এ ঘটনা বেশি ঘটে। তাছাড়া কাঠ বাদামে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘ই’ আছে যা শরীরের কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে।

নতুন এই গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন দক্ষিণ-পূর্ব যুক্তরাষ্ট্রের টেনেসির ভ্যান্ডারবিল্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব মেডিসিনের বিশেষজ্ঞ ডা. জিয়াও ওউ শু। গবেষণাটি ‘জামা’ নামে একটি আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। গবেষক দলের একজন হচ্ছেন পেনিসিলভিয়ানা স্টেট ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক পেনিক্রিস আথারটন। তিনি বলেন, ‘সাধারণত যে কোনো কিছু খাবার পরই আমাদের রক্তের ধমনীতে এক ধরনের বাঁধা পড়ে। কিন্তু আমরা দেখেছি, বাদাম এই বাঁধা দূর করতে সাহায্য করছে।’

তাই তুমুল আড্ডার সাথেই শুধু নয়, বাদামকে এখন থেকে স্থান দিন আপনার একান্ত খাবার টেবিলেও। তাহলেই আমাদের দেশে হৃদরোগের প্রকটতা অনেকটাই কমে আসবে। সাথে হাজারো রোগের হাত থেকে আমাদের আগাম মুক্তি মিলবে।