হৃদরোগের সেবায় ই-হার্ট অ্যাপ

হৃদরোগের সেবায় ই-হার্ট অ্যাপ

SHARE
E-Heart App to Serve Heart Disease

হৃদরোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে একটি আধুনিক মোবাইল অ্যাপ উন্মোচন করেছে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন। ই-হার্ট নামের হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা ও রোগীর ইন্টার‌্যাক্টিভ কমিউনিকেশন অ্যাপটি প্লে স্টোর ও অ্যাপলের অ্যাপস্টোরে ছাড়া হয়েছে। সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সহায়তায় অ্যাপটি তৈরি করেছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবার ল্যাব। তবে এটি শুধু ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের হৃদরোগীরা এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারবে।

অনেক সময় দেখা গেছে এ রোগে আক্রান্ত রোগীরা প্রায়ই কখন কোন ওষুধ খেতে হবে তা ভুলে যায়।কিংবা কোন তারিখে চিকিৎসকের কাছে যাবেন সেটাও ভুলে যায় অনেকে। যদি রোগীকে ওষুধ খাওয়া, চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার সময়টি অ্যালার্ম দিয়ে জানিয়ে দেয়া যায় তাহলে কেমন হয়? হ্যাঁ, ঠিক তাই হবে। এখন থেকে দেশের হৃদরোগীরা ই-হার্ট নামে একটি অ্যাপে এক ক্লিকেই এসব সুবিধা পাবেন।

এ অ্যাপ কেবল ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের রোগীরা ব্যবহার করতে পারবেন। এ অ্যাপে পেশেন্ট প্রোফাইল, রিস্ক স্কোর, অ্যাপয়েনমেন্ট, প্রেসক্রিপশন, রেস্ট রেজাল্টস, রিস্ক ট্রেন্ড, ফলোআপ, হার্ট রেইট অপশন রয়েছে। হার্ট ফাউন্ডেশনের রোগীদের হাসপাতাল কর্তৃক হাসপাতাল আইডি বা নিজেরা অ্যাপ ডাউনলোড করে রেজিস্ট্রেশন করে লগইন করতে হবে। রোগীর প্রোফাইলে রোগীর নাম, বয়স, উচ্চতা, ওজন, রক্তের গ্রুপ, রোগের ধরন ইত্যাদি থাকবে। রিস্ক স্কোরে রোগীর ঝুঁকির হিসাব থাকবে। প্রধানত এ রোগীর কোলেস্টেরল, এইচডিএল কোলেস্টেরল, সিস্টোলিক রক্তচাপ, রোগীর বয়স, লিঙ্গ, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, ধূমপানের ক্ষেত্রের তথ্য ঝুঁকি স্কোর গণনা করতে ব্যবহৃত হবে। স্কোর অনুযায়ী রোগীর একটি গ্রাফ তৈরি হবে। রিস্ক স্কোরে মডিউলে ক্লিক করে রোগী তার ঝুঁকি স্কোর দেখতে পাবেন। অ্যাপয়েন্টমেন্ট মডিউলে কোন হৃদরোগী নতুন অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে পারবেন। এখানে হার্ট ফাউন্ডেশনের চিকিৎসকদের বিস্তারিত তথ্য সংরক্ষিত থাকবে।