হলুদ দাঁত সাদা করার উপায়

হলুদ দাঁত সাদা করার উপায়

SHARE
white teeth

ধবে ধবে সাদা দাঁত কার না পছন্দ বলুন? কিন্তু অনেকে সময় বিভিন্ন কারণে দাঁত হলুদ হয়ে যায় বা হলদেটে হলদেটে দাগ পড়ে যায়। প্রতিদিন নিয়ম করে দাঁত ব্রাশ করার পরেও হলেদে দাগ দূর হয় না। আসুন জেনে নেই হলুদ দাঁত সাদা করার উপায় ও কার্যপ্রণালী…

বেকিং পাউডার

এটি দাঁত সাদা করতে সবচেয়ে কার্যকরী। একটি ব্রাশ ভিজিয়ে নিয়ে পেস্টের সঙ্গে কিছুটা বেকিং পাউড়ার নিয়ে দাঁত মাজলে দাঁত হয় ঝকঝকে সাদা। সকালে ঘুম থেকে উঠে কিংবা রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে দাঁত ব্রাশের সময় এটা করা যেতে পারে।

লেবুর রস

এক চিমটি লবণ ও কয়েক ফোঁটা লেবুর রস দিয়ে দাঁত মাজুন। এতে দাঁত সাদা হয়। এছাড়া লেবুর খোসা দিয়ে দাঁতে স্ক্রাবিংও করতে পারেন। দাঁত সাদা করতে এটাও বেশ ভাল উপায়।

স্ট্রবেরির বিচি

স্ট্রবেরি খেতে যেমন মজাদার, ফলটির বিচিও দাঁতের জন্যও বেশ উপকারী। স্ট্রবেরি ফলের ছোট ছোট বিচি আপনার দাঁতের বাইরের অংশে ঘষুন। সপ্তাহে কমপক্ষে ২ বার এই কাজ করলে দাঁতে জমে থাকা ময়লা সহজেই দূর হয়। একই সঙ্গে দাঁতের রংও হবে উজ্জ্বল।

কমলার খোঁসা

সকালে ঘুম থেকে উঠে পানি দিয়ে আপনার দাঁত ধুয়ে ফেলুন। তারপর কমলালেবুর খোসা দিয়ে দাঁত ঘষুন। কমলালেবুর খোসায় ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন সি এর উপস্থিতি থাকায় দাঁতের অণুজীবের সঙ্গে লড়াই করে। এতে দাঁত আরও সাদা এবং শক্তিশালী হয়।

সবুজ চা

এতে প্রচুর ফ্লুরাইড থাকে। এছাড়া এটি এন্টি এসিডিক হওয়ায় দাঁতে হলুদ রং পড়তে বাঁধা দেয়।

মাশরুম

দাঁত সাদা করতে খেতে পারেন মাশরুম। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পলিস্যাকারাইড যা ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে ও ডেন্টাল প্লাক হতে দেয়না।

পাইপ/স্ট্র ব্যবহার

অনেকের চা ও কফির প্রতি দারুণ আসক্তি আছে। অবস্থা এমন যে সারা দিন কত কাপ চা বা কফি খাওয়া হয়েছে তার হিসাব মেলানো দায়। একই কথা প্রযোজ্য সোডাজাতীয় পানীয়ের ক্ষেত্রে। তবে চা, কফি ও সোডাজাতীয় পানীয় দাঁতের শত্র। এগুলো দাঁতের রং নষ্ট করে দেয়। দাঁত রক্ষায় এগুলো পান পুরোপুরি ত্যাগ বা নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে। আর তা সম্ভব না হলে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে পাইপ বা স্ট্র ব্যবহার করুন।

কাঠকয়লা

আগের দিনে  মানুষের দাঁত পরিষ্কারে ব্যবহৃত হতো কাঠকয়লা। কাঠকয়লা আপনার দাঁত সাদা করতে সাহায্য করে। তাই মাঝে মাঝে কাঠ কয়লা মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

ফ্লস ব্যবহার

দাঁতের পরিচ্ছন্নতা ও রং সুরক্ষায় ফ্লসও বেশ উপকার দেয়। দাঁতের ফাঁক থেকে খাদ্যের কণা দূর করতে নিয়মিত ফ্লস ব্যবহার করুন। বিশেষত সারা দিন খাবারদাবার খাওয়ার পর প্রতি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ফ্লস ব্যবহার করে দাঁত পরিষ্কার ও উজ্জ্বল রাখা যায়।