সুন্দর নখ পেতে করণীয়

সুন্দর নখ পেতে করণীয়

SHARE
Beautiful nail

সুন্দর ঝকঝকে নখ আপনার সৌন্দর্য বাড়িয়ে দেয় অনেকাংশেই। নখের রং বদলে হলদেটে ভাব হওয়া, কখনো বা নখ ভঙ্গুর হয়ে যায়। এসব সমস্যা থেকে রেহাই পেতে ও নখ ভালো রাখতে প্রথমেই দরকার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা। সে জন্য নিয়মিত হাত-পায়ের যত্ন নিতে হবে। আসুন জেনে নিই সুন্দর নখ পেতে করণীয় সম্পর্কে-

মাসে অন্তত দুবার ম্যানিকিউর, পেডিকিউর করতে হবে। সম্ভব হলে প্রতি ১৫ দিনে একবার করা ভালো। এতে নখের সমস্যা অনেকখানি কমে যাবে।

সপ্তাহে ১ বার নখ ফাইল করুন। যাদের নখ দুর্বল তারা মেটাল ফাইলার ইউজ না করে পেপার ফাইলার ব্যবহার না করাই ভালো। নখের জিনের উপর নখ ভাঙাটা নির্ভর করে তাই নখ ফাইল করার সময় একই ডিরেকশনে নখ ফাইল করুন, বিভিন্ন ডিরেকশনে ফাইল করলে নখ ফাটার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করুন এতে আপনার নখের সাথে সাথে শরীরও ভালো থাকবে।

নখের বৃদ্ধির ক্ষেত্রে কিউটিকল একটি বড় ভূমিকা পালন করে তাই তার দিকেও একটু নজর দিন। কিউটিকল ভালো রাখার জন্য রাতে ঘুমানোর আগে ভ্যাসলিন বা অলিভ অয়েল ম্যাসাজ করুন। সম্ভব হলে কিউটিকল অয়েল ব্যবহার করুন।

নেইল পলিশ লাগানোর আগে বেইজকোট বা নখ শক্ত করে এমন বেইজকোট লাগানো জরুরি। এটা নখ বাড়তেও সাহায্য করে। প্রতিবার নেইল পলিশ উঠানোর সময় নখকে ময়েশ্চারাইজ করুন তাতে রিমুভার ব্যবহারের ধকল কিছুটা সামলানো যাবে।

শক্ত নখের জন্য প্রতিদিন ১ গ্লাস দুধের বিকল্প কিছুই নেই। তাই প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় এক গ্লাস দুধ রাখুন।

লেমন জুস বা দুধের মধ্যে কিছুক্ষণের জন্য নখ ডুবিয়ে রাখতে পারেন তাতে নখে ক্যালসিয়াম বাড়বে যদিও এগুলো খাওয়ার কোনো বিকল্প নেই। হালকা গরম দুধ নখ সাদা করতেও সাহায্য করে।

ভিটামিন ই শুধু চুলের জন্যই ভালো না, এটি নখের বৃদ্ধির জন্যও ভালো। তাই নখের সুস্বাস্থ্যের জন্য ভিটামিন ই যুক্ত খাবার অথবা ট্যাবলেট গ্রহণ করুন।

যাদের নখ ভাঙার সমস্যা আছে, তারা নিয়মিত নেইল হার্ডনার ব্যবহার করতে পারেন। এটি নেইলপলিশের মতো বাজারে কিনতে পাওয়া যায়।

সকালে গোসলের আগে বাফার দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। এতে হলদেটে ভাব কেটে যাবে। আর সপ্তাহে একদিন গরম পানিতে শ্যাম্পু দিয়ে হাত-পা ডুবিয়ে রাখুন। এরপর নরম ব্রাশ দিয়ে হাত-পা ঘষে পরিষ্কার করুন। হাত-পায়ের ত্বক ও নখ দুটোই পরিষ্কার থাকবে।

অনেক সময় সবজি কাটলে নখে দাগ হয়ে যায়। সে অবস্থা থেকে রেহাই পেতে লেবু কেটে ঘষে নিতে পারেন। নিমিষেই দাগ দূর হবে।

এক সপ্তাহের বেশি নেইলপলিশ লাগিয়ে রাখা উচিত নয়। মাঝে অন্তত দুই দিন বিরতি দিয়ে আবার নেইলপলিশ ব্যবহার করতে পারেন।