সাইবার হামলা থেকে বাঁচতে করণীয়

সাইবার হামলা থেকে বাঁচতে করণীয়

SHARE
What should do to avoid cyber attacks

সাম্প্রতিক সময়ে সবচেয়ে বড় সাইবার হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ হামলায় বাংলাদেশসহ বিশ্বের মোট ১৫০টির দেশে র‌্যানসমওয়্যার ভাইরাসের আক্রমণ হয়েছে। ২ লাখ কম্পিউটার আক্রান্ত হয়েছে। ফলে কম্পিউটার স্ক্রিন খুললেই টাকা দাবি করা হচ্ছে, তা না হলে কম্পিউটারে কোনো কাজ করা যাচ্ছে না এবং কম্পিউটারের ভেতরে থাকা গুরুত্বপূর্ণ নথিও হ্যাক হয়ে যাচ্ছে। আরো আক্রমণের আশংকা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে ভারতের সিইআরটি-র পক্ষ থেকে একটি সতর্কবার্তা প্রচার করা হয়েছে। র‌্যানসমওয়ার হানায় কী হয় এবং কোনো কোনো দিকে খেয়াল রাখলে এর থেকে বাঁচা সম্ভব, তার একটি গাইডলাইন দিয়েছে সিইআরটি।

http://webcast.gov.in/cert-in/ এই ওয়েবসাইট থেকে সেই গাইডলাইনটি দেখে নেয়া যাবে।

যেভাবে ছড়িয়ে পড়ছে র‌্যানসমওয়্যার:

মূলত ই-মেইল ও মেসেজ পাঠানো স্প্যাম লিংকের মাধ্যমে ঢুকে পড়ছে র‌্যানসমওয়্যার। এছাড়া জনপ্রিয় অ্যাপের ছদ্মাবরণেও ডিভাইসে ঢুকে পড়ছে এটি। শুধু তাই নয়, অন্যান্য ভাইরাসের মতো ফিশিং বা স্প্যাম ই-মেইলসহ ভুয়া সফটওয়্যার আপডেটের প্রলোভনেও ছাড়াচ্ছে ক্ষতিকর এ ভাইরাস।

সাইবার হামলা থেকে বাঁচতে কি করবো?

বিবিসির ক্রিস ফক্স এ ব্যাপারে পরামর্শ দিচ্ছেন, সাধারণ কম্পিউটার ব্যবহারকারীরা তিনটি জিনিস করতে পারেন।

“একটি হচ্ছে, আপনার কম্পিউটার, ল্যাপটপ, আইপ্যাড, ট্যাবলেট বা মোবাইল ফোনে এর প্রস্তুতকারকরা যে সব সফটওয়্যার আপডেট করতে বলেন, তা ঝুলিয়ে রাখবেন না। সঙ্গে সঙ্গে করে ফেলুন।”

“অচেনা বা অপ্রত্যাশিত কোনো ই-মেল খুলবেন না, কোন অ্যাটাচমেন্ট ডাউনলোড করবেন না। কোনো অচেনা লিংকের ওপর ক্লিক করবেন না।”

“তিন নম্বর: আপনার কম্পিউটার যদি এখনো পুরোনো অপারেটিং সিস্টেম যেমন ‘উইনডোজ এক্সপি’ দিয়ে চলে – যার এখন আর কোনো টেকনিক্যাল সাপোর্ট পাওয়া যায় না – সেগুলো ব্যবহার করা অনেক বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। এগুলো আপগ্রেড করুন, নতুন অপারের্টিং সিস্টেম ব্যবহার করুন – যেগুলোর নিরাপত্তার জন্য এর নির্মাতারা নিয়মিত আপডেট দিয়ে থাকেন।”

অ্যান্টি ভাইরাস সফটওয়্যারের ব্যবহার:

অ্যান্টি ভাইরাস সফটওয়্যার ব্যবহার করলে অন্তত চেনা ভাইরাসের আক্রমণ থেকে কম্পিউটারকে বাঁচানো সম্ভব হয়। যারা সেভাবে পারদর্শী নন অথচ কম্পিউটার ব্যবহার করতে হয়, তাদের কম্পিউটারে অ্যান্টি ভাইরাস না থাকলে চেনা ভাইরাসও মারাত্মক ক্ষতি করে দিয়ে চলে যাবে।