রোহিঙ্গাদের সহায়তায় এবার ইইউ

রোহিঙ্গাদের সহায়তায় এবার ইইউ

SHARE
UN-in Rohinga issue

বর্তমানে সারা বিশ্বের আলোচিত বিষয় রোহিঙ্গা সংকট। মিয়ানমারে রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর বর্বরোচিত রাষ্ট্রীয় হামলা বিশ্ব বিবেককে দারুণভাবে নাড়া দিয়েছে। শান্তির জন্য নোবেলজয়ীর দেশে রোহিঙ্গাদের ওপর এমন নির্যাতন-গণহত্যায় বিশ্ববাসী হতবাক, উদ্বিগ্ন। আর তাই এবারে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য অতিরিক্ত মানবিক সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। সংস্থাটি এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, মঙ্গলবার ইইউ কমিশন ঘোষণা দিয়েছে যে, মিয়ানমার থেকে অধিক সংখ্যক রোহিঙ্গা শরণার্থী আসার কারণে তারা অতিরিক্ত ৩০ লাখ ইউরো মানবিক সহায়তা দেবে। এর মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের সহায়তায় এবার ইইউ

ইইউ কমিশনের মানবিক সাহায্য ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিশনার ক্রিসটোস স্টাইলিয়ানিডেস মে মাসে রাখাইন সফরের সময়ে ১২ লাখ ইউরোর সহায়তা ঘোষণা দিয়েছিল। এই ৩০ লাখ ইউরো সাহায্য আগের সহায়তার অতিরিক্ত।

ক্রিসটোস স্টাইলিয়ানিডেস বলেন,‘এই অতিরিক্ত বরাদ্দ নতুন আসার শরণার্থীদের জরুরি ভিত্তিতে বাসস্থান,পানি,খাদ্য ও স্বাস্থ্য সহায়তা দেওয়ার কাজে ব্যবহার হবে।  আমি বাংলাদেশ সরকারকে ধন্যবাদ জানাই এই শরণার্থীদের আশ্রয় দেওয়রি জন্য।’

ইইউ ১৯৯৪ থেকে মিয়ানমারকে ২৩২ মিলিয়ন ইউরো মানবিক সহায়তা দিয়েছে।

উল্লেখ্য,
২০১২ সালে রাখাইনে সংঘাত শুরু হওয়ার পর তাদের ওপর কড়াকাড়ি আরোপ করা হয়েছিল। তারপর থেকে অনেক রোহিঙ্গা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন, অথচ তারা মিয়ানমারের নাগরিক হওয়ার পরও এখন দেশহীন। সম্প্রতি মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীর অত্যাচার-নির্যাতন থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে তিন লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা। গত বছরের অক্টোবরে মিয়ানমারে সীমান্ত ফাঁড়িতে সন্ত্রাসী হামলার জেরে সেনাবাহিনীর পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য রোহিঙ্গাদের ওপর ব্যাপক নিধনযজ্ঞ শুরু হয়। রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের কারণে মিয়ানমার বিশ্ব সম্প্রদায়ের সমালোচনার মুখে পড়ে। 

LEAVE A REPLY