রূপচর্চায় চিনির ব্যবহার

রূপচর্চায় চিনির ব্যবহার

SHARE
Skin care with sugar

চা খেতে চিনি লাগে, কফি খেতে চিনি লাগে, মিষ্টিজাতীয় সব খাবার তৈরিতেই চিনির প্রয়োজন পড়ে। চিনি মানেই খাবারের মিষ্টতা। তবে শুধু খাবারের মিষ্টতাই নয়, চিনি বাড়িয়ে তোলে চেহারার উজ্বলতাও। চলুন জেনে নিই রূপচর্চায় চিনির ব্যবহার সম্পর্কে-

চেহারার ঔজ্জ্বল্য ধরে রাখতে ত্বকের হাইড্রেশন করা প্রয়োজন। তিলের তেল, চিনি ও কয়েক ফোঁটা ইউক্যালিপটাস অয়েল মিশিয়ে নিন। এই প্যাক মুখে লাগিয়ে রাখুন ১০ থেকে ১৫ মিনিট। হালকা গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ময়শ্চারাইজার, ক্রিম বা লোশন লাগিয়ে নিন।

সব ধরনের ত্বকেই দারুণ স্ক্রাব হিসেবে কাজ করে চিনি। অলিভ অয়েলের সঙ্গে কয়েক টামচ চিনি ও কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ মুখে লাগিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট। হালকা গরম পানিতে আলতো করে স্ক্রাব করে তুলে ফেলুন।

মরা চামড়া চেহারার উজ্জ্বলতা কমিয়ে দেয়। এই মরা চামড়া তুলতে ভাল কাজ করে চিনি। এক চা চামচ গরম নারকেল তেলের সঙ্গে দু’চা চামচ চিনি মিশিয়ে মুখে স্ক্রাব করুন। হালকা গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন। মরা চামড়া উঠে গিয়ে ত্বক উজ্জ্বল হবে।

ঠোঁট ফাটার সমস্যা থাকলে চিনি ও বিটের রস এক সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ ঠোঁটে মাসাজ করুন। হালকা গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন। এতে ফাটা কমে ঠোঁট নরম তো হবেই, লাল রঙও ধরে রাখবে বিটের রস।

প্রেগন্যান্সির পর বা হঠাৎ করে ওজন কমে গেল ত্বকে স্ট্রেচ মার্ক দেখা দেয়। চামড়ার ওপর ফাটা ফাটা দাগ দেখতে বিশ্রি লাগে। এই স্ট্রেচ মার্ক তুলতে পারে চিনি। কফি, চিনি, আমন্ড তেল ও মধু মিশিয়ে রোজ মালিশ করুন। নিয়মিত করলে ধীরে ধীরে হালকা হয়ে যাবে স্ট্রেচ মার্ক।

 

LEAVE A REPLY