রূপচর্চায় চকলেটের ব্যবহার

রূপচর্চায় চকলেটের ব্যবহার

SHARE
Chocolate for skin

চকলেট খাওয়া যে স্বাস্থ্যের জন্য ভালো তা সবাই জানেন। এতে তারুণ্য বজায় থাকে। ত্বকে বয়সের ছাপ পড়ে না সহজে। তাদের পরামর্শ, চকলেট শুধু খাওয়াই নয় মুখে ও দেহে মাখলেও বলিরেখা সহজে পড়বে না। চকলেট কেবল দেহের ভেতর থেকেই উপকার করে না, বাইরে থেকেও করতে পারে। প্রসাধন সামগ্রীর মতো একে ত্বকে লাগালে বলিরেখা পড়বে না। গবেষণায় বলা হয়েছে, চকলেট এমনিতেই মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে। হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। আসুন জেনে নিই রূপচর্চায় চকলেটের ব্যবহার সম্পর্কে-

চকলেট অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর। তাই এটি চেহারায় বয়সের ছাপ ফেলতে দেয় না। দেহে প্রবেশ করা দূষিত ও বিষাক্ত পদার্থ মানুষকে দ্রুত বুড়ো করে দেয়। চকলেটে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান। ফলে স্পর্শকাতর এবং শুষ্ক ত্বকের জন্য দারুণ উপকারী চকলেট। ডার্ক চকলেট ত্বকের কোমলতা ধরে রাখে এবং একে মসৃণ করে।  

চকলেটে থাকা ফ্লেভানোলস আর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট অতিবেগুনি রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে। দূষিত উপাদান দূর করার মাধ্যমে ত্বকের সজীবতা ধরে রাখে। ফ্লেভানোল হলো সাইটোনিউট্রিয়েন্ট যা উচ্চ রক্তচাপ, কোলেস্টরেলের মাত্রা, হৃদরোগের ঝুঁকি, রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা ইত্যাদি কমিয়ে আনে। ক্যাফেইনের সঙ্গে মেশানো হলে চকলেট একটা দারুণ অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি খাবার।  

চকলেট ত্বকে মাখলে তা সজীব হয়ে ওঠে। বলিরেখা দূর হয়। ত্বকের জৌলুস বাড়ে।

ব্যবহারবিধিঃ

ছোট একটা কাপের তিন ভাগের একভাগ কোকোয়া পাউডারে ২-৩ টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে তাতে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস দিন। এই চকলেট মাস্ক মুখে মেখে ১৫-২০ মিনিট রাখুন। এর পর ধুয়ে দেখুন, ত্বকের জৌলুস বেড়ে যাবে।