মানানসই কানের দুল

মানানসই কানের দুল

SHARE
Beautifull ear-ring

সাজের অন্যতম উপকরণ হলো কানের দুল। যেকোন সাজের ক্ষেত্রেই একজোড়া কানের দুল না হলে কিন্ত সাজটাই অসম্পূর্ণ থেকে যায়। এছাড়া কানের দুল হল সেই অলংকার যা নারীর ব্যক্তিত্বকে ফুটিয়ে তোলে।

তবে কেমন হবে এই কানের দুল? আসুন জেনে নিই সে সম্পর্কে কিছু কথা-

বর্তমানে মেটাল, বিডস, পিতল, বাঁশ, কাঠ, হাড়গোড়, মাটি, সুতা, ধাতু, পালক, নারকেলের মালা, ঝিনুক, শামুকের খোলাসহ নানা উপকরণ দিয়ে তৈরি এসব কানের দুলের নকশায় করা হচ্ছে নানা রকম এক্সপেরিমেন্ট। আর নকশাতে আদিবাসী থিমও চলছে বেশ। কানপাশা, মিনা করা ঝুমকা, নকশার ঝুমকা, মাকড়ি, কলকা, চুড়, ঘণ্টিসহ নানা ডিজাইন রয়েছে এসব কানের দুলে।

এখন বাজারে এসেছে হালকা ও হেভি মেটালের কানের দুল। সাথে এতে ফুটে উঠেছে এন্টিক ও ট্রাইভাল লুক। টিন এজ ফ্যাশনের সাথে মিলিয়ে টপস, ফতুয়া, জিনস, ক্যাপ্রি, শার্ট কিংবা স্কার্টসহ শাড়ির সঙ্গেও চমৎকার লাগবে এগুলো। এছাড়া বিভিন্ন ডিজাইনের মেটালের ওপর স্টোন বসানো, সিলভারের ওপর পলিশ করা আর আর্টিফিশিয়াল মুক্তার ছোট বড় দুলের চাহিদা রয়েছে বরাবরই। আর একটু দামের মধ্যে কিনতে চাইলে পেয়ে যাবেন রুবি, পান্না, আনকাট ডায়মন্ডের কানের দুলও।

তবে কানের দুলের ক্ষেত্রে বরাবরই চলে আসে মুখের আকৃতির বিষয়টি। বিভিন্ন মানুষের মুখের আকৃতি বিভিন্ন ধাঁচের হয়ে থাকে। সব ধরনের আকৃতির সঙ্গে সব ধরনের কানের দুল মানায় না। তাই নিজের মুখের আকৃতির দিকে খেয়াল রেখে কানের দুল বেছে নেওয়া ভালো।’

সুতি শাড়ি ও সালোয়ার-কামিজ এবং টপস, ফতুয়ার সঙ্গে খুব সহজেই মানিয়ে যাবে কাঠ, পিতল, কাঁসা, শোলা, মাটি, পুঁতিসহ এ ধরনের নানা উপকরণের কানের দুল। এছাড়া ঝলমলে বুননের সিনথেটিক কাপড়ের শাড়ি বা সালোয়ার-কামিজের সঙ্গে ধাতু আর স্টোনের কানের দুলও চমৎকার লাগবে।

প্রাপ্তিস্থানঃ

আপনার নিকটস্থ আড়ং, মাদুলি, পিরান, বিবিয়ানা, দেশাল, রঙসহ বিভিন্ন ফ্যাশন হাউস, আজিজ সুপার মার্কেট, নিউমার্কেট, গাউসিয়া, নাভানা টাওয়ার, কর্ণফুলি গার্ডেন সিটি, বসুন্ধরা সিটি, মৌচাক মার্কেট, ইস্টার্ন প্লাজা, গুলশান মার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেট ও শপিংমলে খুব সহজেই দেখা মিলবে মনকাড়া ডিজাইনের এসব কানের দুলের।