মজাদার আলুর দম

মজাদার আলুর দম

SHARE
alu dom-

লুচি-সবজি কিংবা লুচি-মাংস বা লুচি সাথে আলুর দম… বাঙালি মাত্রই এই খাবার গুলোর সাথে পরিচিত। কেবল নিত্য দিনের খাবারে নয়, এদেশের পূজা- পার্বণেও লুচির একটা ভীষণ কদর রয়েছে। লুচির সাথে মোহনভোগ হালুয়া কিংবা গরম রসগোল্লার নাম শোনা মাত্রই জিবে পানি আসতে বাধ্য ভোজন রসিক বাঙ্গালির। আর গরম গরম ফুলকো লুচির সাথে যদি ঝাল ঝাল আলুর দম হয়, তাহলে তো কথাই নেই! আসুন, আজ জেনে নেয়া যাক আলুর দম বানাবার রেসিপি। যতটা ঝঞ্ঝাট মনে হচ্ছে, ততটা কিন্তু মোটেও নয়। বরং আগের রাতে একটু গুছিয়ে রাখলে সকালে লুচি- আলুর দম করতে পারবেন কর্মজীবী যে কেউ। আবার লাঞ্চ বক্সে কিংবা বাচ্চাদের টিফিনেও মানাবে বেশ। ফুলকো লুচি বেলতে অনেকেই মনে করেন লুচির ময়দায় বেশি করে তেল বা ঘি এর খামির দিলে লুচি ফুলবে ভালো। অনেকেই ভাবেন খামিরকে বুঝি আধ ঘণ্টা ভেজা কাপড়ে ঢেকে রাখলে লুচি ফুলকো হবে। সত্যি বলতে কি, এসব কিছুই করতে হবে না। আপনার চট করে বানানো লুচিই হবে ফুলকো আর নরম। আসুন জেনে নিই মজাদার আলুর দম সম্পর্কে-

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

ছোট আলু ২৫০ গ্রা‌ম। টক দই ২,৩ টেবিল-চামচ। টমেটো পিউরি ১/৪ কা‌প। গরম মসলা-গুঁড়া ১ চা-চামচ। আস্ত গরম মসলা প্রয়োজন মতো। আস্ত জিরা আধা চা-চামচ। আদা ও রসুন বাটা ১ চা-চামচ করে। পেঁয়াজকুচি ৪টি। মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ। হলুদগুঁড়া আধা চা-চামচ। চিনি ও লবণ স্বাদ মতো। মাখন ৩ টেবিল-চামচ। কাজুবাদাম-বাটা ৩ টেবিল-চামচ (ইচ্ছা)। ধনেপাতা-কুচি ইচ্ছা।

প্রস্তুতপ্রণালী: আলু সিদ্ধ করে ছিলে সামান্য লবণ ও মরিচগুঁড়া মিশিয়ে তেলে লাল করে ভেজে উঠিয়ে রাখুন।

প্যানে মাখন গরম করে আস্ত জিরা ও আস্ত গরম মসলা ফোঁড়ন দিয়ে পেঁয়াজকুচি দিন। পেঁয়াজ লাল হলে আদা ও রসুন বাটা, টমেটো পিউরি দিয়ে কষিয়ে নিন।

টমেটোর কাঁচা গন্ধ চলে গেলে এবং তেল ছেড়ে আসলে অল্প পানি দিয়ে হলুদ ও মরিচ গুঁড়া কষিয়ে নিন। তারপর অল্প পানিতে ভালোভাবে টক দই ফেটিয়ে ঢেলে দিন।

কাজুবাদাম-বাটা, স্বাদ মতো লবণ ও চিনি দিন। মসলার মিশ্রণ ভালোভাবে কষিয়ে ভেজে রাখা আলু মিশিয়ে মাখা মাখা পানি দিন।

পানি ফুটে উঠলে ঢাকনা দিয়ে আঁচ কমিয়ে দমে রাখুন।

পছন্দ মতো ঝোল ঘন হলে ধনে পাতা ও গরম মসলাগুঁড়া মিশিয়ে আরও মিনিট দুয়েক দমে রেখে নামিয়ে ফেলুন।