‘বালি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’ এ বাংলাদেশের দুই ছবি

‘বালি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’ এ বাংলাদেশের দুই ছবি

SHARE
Two movies in Bali Film Festival

ইন্দোনেশিয়ার চলচ্চিত্র বিষয়ক জাতীয় উৎসব ‘বালি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল’। পর্যটন নগর বালিতে প্রতি বছরে আয়োজন করা হয় এটি । আগামী ৩০ তারিখ শুরু হতে যাচ্ছে জাঁকজমকপূর্ণ এই উৎসবের ১৪তম আসর।

খুশির খবর হল রাজকীয় এই “বালি ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল” এ অংশ নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশর দুটি ছবি। ছবি দুটি হলো তৌকির আহমেদ পরিচালিত ‘অজ্ঞাতনামা’ ও বিজন পরিচালিত ‘মাটির প্রজার দেশে’।

উক্ত উৎসবে প্রতিযোগিতার জন্য ছবি চেয়ে বালি ফেস্টিভ্যাল থেকে এবারই প্রথমবারের মত যোগাযোগ করা হয় জাকার্তায় অবস্থিত বাংলাদেশ অ্যাম্বাসির সঙ্গে। এরপর অ্যাম্বাসি যোগাযোগ করে ফরেইন মিনিসট্রি অফ বাংলাদেশ এবং তথ্য মন্ত্রণালয়ে। পরবর্তীতে বিএফডিসির তত্বাবধানে বাংলাদেশ সরকারের নির্বাচন এবং অন্যান্য সকল প্রক্রিয়া শেষে এবারের রয়্যাল বালি ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে অংশ নিতে যাচ্ছে ‘অজ্ঞাতনামা’ ও ‘মাটির প্রজার দেশে’ ছবি দুটো।

এছাড়া আরো জানা গেছে, ইন্দোনেশিয়া, হাঙ্গেরিয়া, সিঙ্গাপুর, ইন্ডিয়া এবং সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন ছবির সাথে লড়বে ‘মাটির প্রজার দেশে’ এবং ‘অজ্ঞাতনামা’।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এরইমধ্যে দর্শকদের মন জয় করেছে তৌকির আহমেদের ‘অজ্ঞাতনামা’ ছবিটি। ছবিটি সাফল্য পেয়েছে বিদেশেও। ছবিটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছন ফজলুর রহমান বাবু, শহীদুজ্জামান সেলিম, মোশাররফ করিম, শতাব্দী ওয়াদুদ, নিপুণ, আবুল হায়াত প্রমুখ।

অন্যদিকে ‘মাটির প্রজার দেশে’র ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয় সিয়াটল ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে। এরপর ছবিটি অংশগ্রহণ করে শিকাগো সাউথ এশিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে এবং প্রতিযোগিতা বিভাগে এশিয়ার সব ছবির মধ্যে প্রথম নির্বাচিত হয়। তারপর ছবিটি প্রদর্শিত হয় এন এফ ডি সি (national film development corporation of India) আয়োজিত ইন্ডিয়ার গোয়ার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ফেস্টিভ্যাল ফিল্ম বাজারের এনএফডিসি রিকমেনডেশনে। এই ছিল ছবিটির ২০১৬ সালের যাত্রা।

নতুন বছরে আরিফুর রহমান প্রযোজিত এবং বিজন পরিচালিত ‘মাটির প্রজার দেশে’ র বাংলাদেশ প্রিমিয়ার হতে যাচ্ছে ১৫তম ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে। আগামী ১২ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এবং  ১৩ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৭ টায় জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে ছবিটির বাংলাদেশ প্রিমিয়ার। তাছাড়া ইতিমধ্যে ছবিটি কোনো প্রকার কর্তন ছাড়াই সেন্সর ছাড়পত্র লাভ করেছে।