বাংলাদেশে আসার সিদ্ধান্ত অ্যাঞ্জেলিনা জোলির

বাংলাদেশে আসার সিদ্ধান্ত অ্যাঞ্জেলিনা জোলির

SHARE
Angelina Jolie's decision to come to Bangladesh

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের ওপর যে যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে তার বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন হলিউড তারকা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সঙ্গে দেখা করতে বাংলাদেশে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন হলিউড সুপারস্টার অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনারের বিশেষ দূত হিসেবে আসবেন তিনি।

বৃহস্পতিবার কানাডার ভ্যানকুভারে বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে রোহিঙ্গা ইস্যুতে আলোচনার সময় নিজের পরিকল্পনার কথা জানান জোলি। তিনি বলেন, যৌন নির্যাতনের শিকার রোহিঙ্গাদের সঙ্গে দেখা করতে তিনি শিগগিরই বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ভাবছেন।

জোলি তার বক্তব্যে মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর অভিযান ও সেখানকার সহিংস ঘটনায় প্রাণভয়ে বাংলাদেশে রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিয়েছে,বিশেষ করে নারী ও শিশুদের ওপর যৌন নির্যাতনের ঘটনার চরম নিন্দা জানান।

বাংলাদেশের প্রতিনিধিকে তিনি জানান নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের দেখতে আসার পরিকল্পনা তার রয়েছে এবং জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনের সম্মেলনের বক্তব্যেও তিনি সেটি উল্লেখ করবেন।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি বিবৃতিতে জানানো হয়, এর আগে ‘সেক্সুয়াল এক্সপ্লয়টেশন অ্যান্ড অ্যাবিউজ’বিষয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে একটি বৈঠক করেন জোলি।

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা অধ্যুষিত রাখাইন রাজ্যে অসংখ্য নারী ধর্ষণসহ সেনাবাহিনীর নির্মম যৌন সহিংসতার শিকার হয়েছে। এর প্রমাণও পাওয়া গেছে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশেেআশ্রয় নেয়া বহু নারীর দেহ পরীক্ষা করে। জোলি এই সহিংসতার তীব্র নিন্দা জানান।