বরবটির স্বাস্থ্য উপকারিতা ও পুষ্টিগুণ

বরবটির স্বাস্থ্য উপকারিতা ও পুষ্টিগুণ

SHARE
yardlong-bean

বরবটি মৌসুমী সবজি হলেও এখন বারো মাসই পাওয়া যায় এটি। ভাজি, ভর্তা অথবা তরকারি করে খাওয়া হয় বরবটি। এছাড়াও এতে রয়েছে চমৎকার পুষ্টিমান। শুধু পুষ্টিমানেই ভরপুর নয় স্বাস্থ্যের জন্যও খুব উপকারি বরবটি। আসুন জেনে নেওয়া যাক বরবটির যত পুষ্টিমান ও স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে-

পুষ্টিমান:-

প্রতি ১০০ গ্রাম সবুজ বা বেগুনি রঙের বরবটিতে রয়েছে ৪৮ ক্যালরি শক্তি,১০ গ্রাম শর্করা এবং ২.৬ গ্রাম প্রোটিন। এতে কোন ফ্যাট এবং ক্ষতিকর কোলেস্টেরল নেই। এছাড়াও এতে রয়েছে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, ভিটামিন ডি, ভিটামিন কে, ক্যালসিয়াম, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস সহ নানারকম ভিটামিন ও মিনারেল।

স্বাস্থ্য উপকারিতা:-

১।  হার্টের সুরক্ষায়:

বরবটিতে রয়েছে প্রচুর উপকারি আঁশ, যা শরীরের এলডিএল (ক্ষতিকর) কলেস্টেরলের পরিমান কমিয়ে দেয়। ফলে হার্টের সুরক্ষা নিশ্চিত হয়। এছাড়াও এটি উচ্চ রক্তচাপ, বুক জ্বালাপোড়া প্রভৃতি সমস্যা দূর করতেও ভূমিকা রাখে এটি।

২। ক্যান্সারের সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়:

বরবটিতে রয়েছে ফ্ল্যাভোনয়েড নামে এ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এর দুটি উপাদান kaempferol ও quercetin যা ক্যান্সার কোষ বৃদ্ধিরোধ করতে চমৎকার কাজ করে।

৩। হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধি করে:

বরবটিতে রয়েছে সিলিকন যা হাড়ের ঘনত্ব বৃদ্ধি করে। এছাড়া হাড় শক্ত করতে প্রয়োজনীয় ক্যালিসিয়ামও পাওয়া যায় বরবটির বীজে।

৪। আয়রনের ঘাটতি পূরণ করে:

ভিটামিন সি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি এ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় আয়রন পরিশোষণে ভূমিকা রাখে। সালাদে কাঁচা বরবটি খেলে তা থেকে প্রচুর ভিটামিন সি পাওয়া যায়। এছাড়া বরবটিতে রয়েছে যথেষ্ট পরিমান আয়রন যা শরীরের আয়রনের ঘাটতি পূরণ করতে পারবে।

৫। শরীরের চর্বি কমাতে সাহায্য করে:

বরবটিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে এ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা শরীর থেকে দূষিত যৌগগুলোকে বের করে দেয়। ফলে সহজে শরীরে চর্বি জমতে দেয় না। এ ছাড়া কম ক্যালরি যুক্ত খাদ্য ও ফ্যাট-কলেস্টেরল না থাকায় এটি পেট ভরে খাওয়া যায়। এতে করে ক্ষুধাভাব কম হয়।

৬। অস্থিসন্ধির ব্যথা কমায়:

সালাদের বাটিতে প্রতিদিন ২৫০ মিলিগ্রাম কাঁচা বরবটি মিশিয়ে নিন। এতে আপনি আপনার প্রতিদিনের ভিটামিন ‘কে’-এর ১৯ শতাংশ মেটাতে পারেন। ভিটামিন কে অস্টিওআর্থারাইটিস সমস্যা থেকে অস্থিসন্ধির যত্ন নেবে। আর রক্ত জমাট বাঁধতে ভিটামিন কে- এর ভূমিকার অপরিসীম।