ফেসবুকে দেয়া আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের খোলা স্ট্যাটাস

ফেসবুকে দেয়া আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের খোলা স্ট্যাটাস

SHARE
Imtiaz Ahmad Bulbul's open status on Facebook ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুলের খোলা স্ট্যাটাস

খ্যাতনামা গীতিকার-সুরকার আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল ভীষণ অসুস্থ। তার হার্টে ৮টি ব্লক ধরা পড়েছে। শিঘ্রই তার সার্জারি করা হবে। ইতিমধ্যে তার চিকিৎসার সব দায়িত্ব নিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

হার্টে ব্লক ধরা পড়েছে এবং আগামি দশ দিনের মধ্যে হার্টের বাইপাস সার্জারি করার জন্য প্রস্তুত আছেন জানিয়ে আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল জানান: আমার হার্টে ৮ টা ব্লক ধরা পড়েছে, এবং বাইপাস সার্জারি ছাড়া চিকিৎসা সম্ভব না। এরই মাঝে কাউকে না জানিয়ে আমি ইব্রাহিম কার্ডিয়াকে-এ CCU তে চারদিন ভর্তি ছিলাম। আগামী ১০ দিনের মধ্যে আমি আমার হার্টের বাইপাস সার্জারি করাতে প্রস্তুত রয়েছি।

মঙ্গলবার রাত ৯টা ১৩ মিনিটে নিজের ফেসবুক আইডি দেয়া এক পোস্টে তিনি তার জন্য সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন।

ফেসবুকে দেয়া ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুলের পোস্টটি নিচে হুবহু তুলে ধরা হলো:

বন্ধুরা,

সরকারের নির্দেশেই ২০১২ সালে আমাকে যুদ্ধ অপরাধীর ট্রাইব্যুনালের কাঠগড়ায় সাক্ষী হিসাবে দাঁড়াতে হয়েছিলো। সাহসিকতার সঙ্গে সাক্ষ্যপ্রমাণ দিতে হয়েছিলো ১৯৭১ এ ঘটে যাওয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলখানার গণহত্যার সম্পূর্ণ ইতিহাস। আর, ওই গণহত্যা থেকে বেঁচে যাওয়া ৫ জনের মধ্যে আমিও একজন। হত্যা করা হয়েছিল একসঙ্গে ৪৯ জন মুক্তিযোদ্ধাকে।

কিন্তু, এই সাক্ষীর কারণে আমার নিরপরাধ ছোটো ভাই ‘মিরাজ’ হত্যা হয়ে যাবে এ আমি কখনোই বিশ্বাস করতে পারিনি। সরকারের কাছে বিচার চেয়েছি, বিচার পাইনি।

আমি এখন ২৪ ঘণ্টা পুলিশ পাহারায় গৃহবন্দী থাকি, একমাত্র সন্তানকে নিয়ে। এ এক অভূতপূর্ব করুণ অধ্যায়।

একটি ঘরে ৬ বছর গৃহবন্দি থাকতে থাকতে আমি আজ উল্লেখযোগ্য ভাবে অসুস্থ। আমার হার্টে ৮ টা ব্লক ধরা পড়েছে, এবং Bypass Surgery ছাড়া চিকিৎসা সম্ভব না।

এরই মধ্যে কাউকে না জানিয়ে আমি ইব্রাহিম কার্ডিয়াক এ CCU তে চারদিন ভর্তি ছিলাম

প্রিয়বন্ধুরা,

আগামী ১০ দিনের মধ্যে আমি আমার হার্টের Bypass Surgery করাতে প্রস্তুত রয়েছি। কোনো সরকারী সাহায্য বা শিল্পী, বন্ধু বান্ধব সাহায্য আমার দরকার নাই, আমি একাই যথেষ্ট (শুধু অপারেশন এর পূর্বে ১০ সেকেন্ড এর জন্য বুকের মাঝে বাংলাদেশ এর পতাকা এবং কোরানশরিফ রাখতে চাই)। আর, তোমরা আমার জন্যে শুধু দোয়া করবে। কোনো ভয় নাই।

তোমাদের,

আ.ই.বুলবুল