প্রতিদিন মাত্র ৩০ মিনিট হেঁটেই সুস্থ থাকুন

প্রতিদিন মাত্র ৩০ মিনিট হেঁটেই সুস্থ থাকুন

SHARE
Stay healthy for walking 30 minutes every day

দিন দিন আমরা অনেক বেশি প্রযুক্তিনির্ভর হয়ে পড়েছি। তাই অনেক বেশি ব্যস্ততার কারণে ব্যায়াম করা হয় না বললেই চলে। তবে সুস্বাস্থ্যের জন্য কায়িক পরিশ্রম বা ব্যায়াম অত্যন্ত জরুরি। ব্যায়ামের সময় না পেলেও প্রতিদিন ৩০ মিনিট হাঁটা স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী।

মেডিসিন অ্যান্ড সায়েন্স ইন স্পোর্টস অ্যান্ড এক্সারসাইজ পত্রিকায় প্রকাশিত একটি গবেষণা পত্র অনুসারে দৌড়ানোর সময় আমাদের মস্তিষ্কের অন্দরে এন্ডোক্যানাবিনয়েডের মতো ফিল গুড হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। ফলে মন চাঙ্গা হয়ে উঠতে সময়ই লাগে না। সেই সঙ্গে মানসিক অবসাদের অবসান ঘটাতেও দৌড়ের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে।

আসুন জেনে নিই প্রতিদিনের হাঁটার আরও কিছু উপকারীতা-

১. হাড় ও পেশির শক্তি বাড়ায়

নিয়মিতা হাঁটা হাড় ও পেশির শক্তি বাড়ায়। প্রতিদিন কমপক্ষে ১৫ মিনিট হাঁটা হাড়কে ভালো রাখে। বিশেষ করে পায়ের স্বাস্থ্য ভালো করে।

২. উচ্চ রক্তচাপ কমায়

আপনি যদি উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায় ভোগেন, তাহলে হাঁটার মতো ভালো ব্যায়াম আর হয় না । কেবল ১৫ মিনিটের হাঁটা রক্তের চাপ কমাতে সাহায্য করে।

৩. ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করে

হাঁটা শরীরে সুগারের মাত্রাকে ঠিকঠাক রাখতে সাহায্য করে। বিভিন্ন গবেষণায় বলা হয়, নিয়মিত ১৫ মিনিট হাঁটা ডায়াবেটিস প্রতিরোধে সাহায্য করে।

৪. ওজন কমায়

প্রতিদিন অন্তত ১৫ মিনিট হাঁটা শরীরের ক্যালোরি ঝড়াতে সাহায্য করে। এতে ওজন কমে। তাই ওজন কমাতে চাইলে অবশ্যই হাঁটুন।

৫. হৃদরোগ কমায়

হাঁটা রক্তের বাজে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। শরীরের রক্তচাপের মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণ করে। এতে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে।

৬. মন ভালো হয়

হাঁটা এনড্রফিনের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে। এনড্রোফিন মস্তিষ্কের এক ধরনের রাসায়নিক উপাদান। এটি মেজাজকে ভালো রাখতে সাহায্য করে।

. সুখী করে

পার্কের মধ্যে পছন্দের কোনো মিউজিক শুনতে শুনতে হাঁটা মানসিক চাপ কমাতে কাজ করে; মন ভালো রাখে। এটি বিষণ্ণতা কমাতে সাহায্য করে।