পাহাড় ভ্রমণে সতর্কতা ও টিপস

পাহাড় ভ্রমণে সতর্কতা ও টিপস

SHARE
Warning tips on mountain travel

ভ্রমণের সবচেয়ে ভালো সময় শীতকাল। আর এখন চলছে বর্ষাকাল। বৃষ্টির কারণে এ সময় ঘর থেকেই যেখানে বের হওয়া যায় না সেখানে ভ্রমণ কীভাবে সম্ভব? তাও আবার পাহাড়ে ভ্রমণ! মন চাইলে সবই সম্ভব। বিশেষ করে যারা বর্ষায় প্রকৃতির রূপ দেখতে চান তারা বৃষ্টি উপেক্ষা করে এই ভরা বাদলেও ভ্রমণের প্রস্তুতি নিতে পারেন।

বর্ষাকাল মানেই বৃষ্টি আর বৃষ্টি মানেই প্রকৃতির সৌন্দর্য বেড়ে যাবে কয়েকগুণে। সবুজের সমারোহে পাহাড়, নদী আর ঝর্ণার অপরূপ সম্মিলনের দেশ বাংলাদেশ। বর্ষায় প্রকৃতির রূপ খোলে। সবুজ হয়ে ওঠে গাছপালা। পাহাড়ী ঝর্ণায় দেখা যায় জলের উল্লাস। ফলে পাহাড়-প্রেমিকেরা পা বাড়ান সেদিকে। এই বৃষ্টির ঋতুতে আপনার ভ্রমণকে আরও সুন্দর করতে পাহাড় ভ্রমণে সতর্কতা ও কিছু টিপস জানাচ্ছি-

সময়টা যেহেতু বর্ষা সেহেতু সঙ্গে রেইনকোট রাখুন। নইলে হোটেল রুমে বসেই দিন কাটাতে হতে পারে। পাশাপাশি ছাতা, ক্যাপ, সানগ্লাস আপনাকে বাড়তি সহায়তা করবে।

পাহাড়ে বৃষ্টির এ সময়ে জোঁক অসম্ভব কিছু নয়। জোঁকের হাত থেকে বাঁচতে সঙ্গে গুল রাখুন। অথবা যদি আগে থেকেই এ বিষয়ে জানতে পারেন তাহলে সতর্ক হতে পায়ে কেরোসিন লাগিয়ে নিন।

ম্যালেরিয়া-প্রবণ এলাকায় বেড়াতে গেলে অবশ্যই মশারি ব্যবহার করতে হবে। বিশেষ কীটনাশকযুক্ত মশারি বাজারে পাওয়া যায় এখন, সেগুলো ভালো। এ ছাড়া মশা তাড়ানোর বিশেষ ক্রিম ব্যবহার করা যেতে পারে। মশার কামড় থেকে বাঁচতে হাতে-পায়ে এই ক্রিম মেখে ফুলহাতা জামা ও পাজামা বা প্যান্ট পরে মশারির বাইরে বেরোতে হবে। এ ছাড়া হোটেল বা রিসোর্টের ঘরে, বাথরুমে ও বারান্দায় মশার ওষুধ স্প্রে করে নিন।

পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেটও রাখতে হবে।

পাহাড়ে হাঁটতে গিয়ে উরুতে ঘা হতে পারে। সঙ্গে বেটনোবেট ওয়েন্টম্যান্ট ক্রিম রাখুন। অবশ্যই গামছা রাখতে হবে। বৃষ্টিতে ভিজলে সঙ্গে সঙ্গে শরীর, মাথা মুছে ফেলুন।

পাহাড়ে হাঁটার সময় এক জায়গায় অনেকক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকবেন না। মশা, জোঁক কামড়াবে। লাঠি এবং ট্রেকিং উপযোগী জুতা সঙ্গে রাখুন। কারণ এ সময় পাহাড়ি রাস্তা পিচ্ছিল থাকবে এটাই স্বাভাবিক।

Warning tips on mountain travel

ছিনতাইকারীর কবলে পড়ার সম্ভাবনা আছে। তাই ব্যাগ সাবধানে রাখুন। ভাড়া দেওয়ার জন্য ভাংতি সাথে রাখুন।

পাহাড় ভ্রমণে সতর্কতা সবসময় অবলম্বন করে চলতে হবেই। তাই স্থানীয় সহায়তা ও পুলিশ সহায়তা জন্য স্মার্টফোনে বাংলাদেশ পুলিশ গুগোল প্লে-স্টোর থেকে নামিয়ে রাখুন। বাংলাদেশের যে কোন অঞ্চলের পুলিশ সহায়তা নাম্বার পাবেন। নিরাপত্তা সবার আগে, তাই এই এপস আপনার দৈনন্দিন জীবনে বিশেষ প্রয়োজন।