নারকেল দুধে কই

নারকেল দুধে কই

SHARE
Koi fish-recepies

রসনা তৃপ্তিতে বাঙালির চাই মাছ। আর নিত্যকার রান্নার চেয়ে একটু ভিন্নস্বাদ পেলে তো কথাই নেই। এক সময় আমাদের দেশের খাল-বিল,নদী-নালায় প্রচুর পরিমাণে মাছ পাওয়া যেত বলে আমরা মাছে-ভাতে বাঙালি নামে পরিচিতি লাভ করি। এখন যদিও আগের মত মাছ পাওয়া যায় না,তবুও আমাদের প্রধান এবং প্রিয় খাদ্য তালিকায় মাছ অন্যতম। সেহরিতে দেশি মাছের কোনো পদ থাকলে মন্দ হয় না। দেশি মাছের ভেতরে কই মাছের কদর রয়েছে বেশ। কই ভাজা, কই ভুনা কিংবা শর্ষে দিয়ে কই তো খাওয়া হয়ই, আজ তবে শিখে নিন নারকেল দুধে কই রান্নার উপায়। রইলো রেসিপি-

প্রয়োজনীয় উপকরণ :

বড় কই মাছ ৬টি,

নারকেলের দুধ দেড় কাপ,

পেঁয়াজকুচি ১ কাপ,

পেঁয়াজবাটা ২ টেবিল-চামচ,

আদাবাটা ১ চা-চামচ,

রসুনবাটা ১ চা-চামচ,

জিরাবাটা ১ চা-চামচ,

মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ,

হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ,

লবণ স্বাদমতো,

তেল ১ কাপ,

টমেটো সস ২ টেবিল-চামচ,

ধনেপাতাকুচি ২ টেবিল-চামচ।

প্রস্তুতপ্রণালি :

মাছ পরিষ্কার করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে হলুদ, লবণ মাখিয়ে গরম তেলে ভেজে উঠিয়ে রাখতে হবে। ওই তেলে পেঁয়াজ ঘিয়ে রং করে ভেজে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা দিয়ে কষিয়ে নিতে হবে। এবার লবণ, টমেটো সস ও মাছ দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে নারকেলের দুধ দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। ঝোল কমে তেলের ওপর এলে কাঁচা মরিচ, ধনেপাতাকুচি দিয়ে নামাতে হবে।

কৈ মাছ পছন্দ করে না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার। গরম ভাতের সাথে কড়কড়ে কৈ মাছ ভাজা আর সামান্য পেঁয়াজ কুচি ভাজা ঠিক যেনো অমৃত। ভেজে খাওয়া ছাড়াও আমরা সাধারণত কৈ মাছের পাতুড়ি খেয়ে থাকি বেশি। কিন্তু পরিবারের সদস্যরা এক খাবারে বেশি মজা পান না। তাই স্বাদ বদলাতে নারকেল দুধে কই রেসিপিটি রাঁধতে পারেন।