নতুন অপারেটিং সিস্টেম অ্যাপলের আইওএস ১২ তে যা থাকছে

নতুন অপারেটিং সিস্টেম অ্যাপলের আইওএস ১২ তে যা থাকছে

SHARE
Apple new operating system IOS 12 features

ভক্তদের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে আইফোন, আইপ‍্যাড ও আইপডের জন্য অ্যাপল এনেছে নতুন অপারেটিং সিস্টেম আইওএস ১২। পূর্বে ফাঁস হওয়া কিছু গুঞ্জনের সঙ্গে মিলে গেছে অ্যাপলের আইওএস ১২ এর বেশ কিছু ফিচার। তবে অ্যাপল চেষ্টা করেছে অপারেটিং সিস্টেমটিকে নতুন করে সাজাতে।

নতুন অপারেটিং সিস্টেমে থাছে স্ক্রিন টাইম, গ্রুপ ফেইস টাইম, মেমোজি, গ্রুপড নোটিফিকেশন সহ আরো অনেক নতুন নতুন ফিচার। আইওএস-এর বর্তমান অপারেটিং সিস্টেম আইওএস  ১১ যারা ব্যবহার করছেন, তারাই এই আপডেট পাবেন তাঁদের ফোনে।

চলুন দেখে নেয়া যাক কী কী ফিচার রয়েছে আইওএসের এ নতুন ভারশনে।

মিমোজি

মিমোজিমনে আছে স্যামসাং গ‍্যালাক্সি এস৯ এর এআর ইমোজির কথা? যা দিয়ে ব‍্যবহারকারীরা নিজের মতো করে কার্টুন চরিত্র বা ইমোজি তৈরি করতে পারতেন। ঠিক তেমনি একটি ফিচার নিয়ে হাজির হলো অ্যাপল। ‘মিমোজি’ নামে ফিচারটি ব‍্যবহার করে ব‍্যবহারকারীরা নিজেদের মতো একটি থ্রিডি কার্টুন বা ইমোজি তৈরি করতে পারবেন। তারপর মিমোজিতে অডিও যুক্ত করে তা আইম‍্যাসেজে পাঠানো যাবে।

সিরি

ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্টের বাজারে শক্ত প্রতিযোগিতার মধ‍্যে দিয়ে যাচ্ছে অ্যাপল। কেননা গুগল অ্যাসিস্ট‍্যান্ট, অ্যামাজনের অ্যালেক্সা কিংবা মাইক্রোসফটের কর্টানা প্রতিনিয়ত শক্তিশালী হচ্ছে। তাই সিরিকে আরো শক্তিশালী করার চেষ্টায় আছে অ্যাপল।ডব্লিউডব্লিউডিসিতে টিম কুক জানান, বিভিন্ন তথ‍্য খুঁজে বের করা ও কাজ করে দেয়ার জন্য সিরিতে ১০ বিলিয়নের বেশি অনুরোধ আসে। তাই নতুন সিরিতে যুক্ত করা হয়েছে চমৎকার এক ফিচার। যা ব‍্যবহারকারীর ধরণ ও চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন পরামর্শ দিতে সক্ষম।ধরুন, প্রতিদিন সকালে উঠে আপনার কফি পান করার অভ্যাস আছে। সিরি সকালেই আপনাকে তা মনে করিয়ে দেবে। প্রতি মুহূর্তে ব‍্যবহারকারীর কাজের ধরণ থেকে শিক্ষা নিয়ে সিরি সে অনুযায়ী সাজেশন দেবে।সিরির আরেকটি নতুন চমৎকার ফিচার হলো শর্টকাটস। এই ফিচারের ব‍্যবহারকারী নিজেদের মতো করে সিরিতে কাস্টমাইজ কমান্ড সেইভ করে রাখতে পারবেন। কাস্টমাইজ কমান্ড দিলে সিরি সে অনুযায়ী কাজ করবে।ধরুন, আপনি অফিস থেকে বাড়ি ফিরে হোমপডে গান, এসি ও লাইট চালু করতে চাচ্ছেন। সিরিতে প্রতিটি বিষয় চালু করতে আলাদা ভয়েস কমান্ড দিতে হয়। কিন্তু আপনি চাইলে একটি ভয়েস কামন্ড নির্বাচন করতে পারবেন এবং এতে কী কী কাজ হবে তা নির্ধারণ করে দিতে হবে। ফলে মাত্র একটি ভয়েস কমান্ডেই অনেকগুলো কাজ করে দেবে সিরি।

কনফারেন্স ফেস টাইম

অ্যাপলের আইওএস ১২ এর ফেস টাইম ব্যবহার করে ৩২জন ব্যবহারারীর সঙ্গে একইসময়ে অডিও বা ভিডিও কলে যু্ক্ত হওয়া যাবে। এছাড়া টেক্সট ইফেক্ট যুক্ত করার সুবিধা থাকছে ছবি বা ভিডিওতে। আর এন্ড টু এন্ড এনক্রিপশন ব্যবস্থা থাকার কারণে সুরক্ষিত থাকবে আলাপচারিতার গোপনীয়তা।

ডোন্ট ডিস্টার্ব মোড

ধরুন, সপ্তাহে প্রতি শনিবার দুপুর ২টায় আপনার অফিসের মিটিং থাকে। সেই সময় কেউ যদি ফোন করে তাহলে রিংটোনের শব্দ আপনাকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলবে। তাই প্রতিটি মিটিংয়ে প্রবেশের আগে ফোনটির ভলিউম আপানকে কমিয়ে রাখতে হয়। কিন্তু হঠাৎ একদিন ভলিউম কমাতে ভুলে গেলেন। তখন ঘটে বিপত্তি।এমন ব‍্যবহারকারীদের ডোন্ট ডিস্টার্ব মোড ফিচারটি কাজে লাগবে। এতে নির্দিষ্ট সময় ও ক‍্যালেন্ডার থেকে তারিখ অনুযায়ী ডিভাইসটির ভলিউম রিংটোন কমানো বা সাইলেন্ট করা, নোটিফেশন বন্ধসহ বিভিন্ন মোড নির্বাচন করে রাখা যাবে। নির্দিষ্ট সময়ে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডোন্ট ডিস্টার্ব মোডটি চালু হয়ে যাবে।

স্ক্রিনটাইম

ফোনটি হাতে নিয়ে বসলে কখন সময় পার হয়ে যাবে তা বুঝে ওঠা কঠিন। এতে অনেক মূল‍্যবান সময় নষ্ট হয়। তাই ডিভাইসটি কতো সময় আপনি ব‍্যবহার করছেন তা দেখে নেয়ার ফিচার এনেছে অ্যাপল। স্ক্রিনটাইম নামক অ্যাপটি ব‍্যবহারকারী কোন অ্যাপ কতো সময় ব‍্যবহার করেছেন, কোন অ্যাপ বেশি সময় ব‍্যবহার করেছেন, কখন ডিভাইসটি বেশি ব‍্যবহার হয় ইত‍্যাদি তথ‍্যগুলো রিপোর্ট আকারে জানাবে। ফলে ব‍্যবহারকারী সময় সম্পর্কে জেনে সচেতন হবে বলে ধারণা অ্যাপলের।

অ্যাপ লিমিটস

কোন অ্যাপ কত সময় ব‍্যবহার করবেন তা নির্ধারণ করার সুবিধা মিলবে অ্যাপলের আইওএস ১২ তে। যদি আপনার মনে হয় ফেইসবুক অ্যাপে বেশি সময় ব‍্যয় করছেন তাহলে দৈনিক অ্যাপটি কত সময় ব‍্যবহার করতে চান তা নির্ধারণ করে দিতে পারবেন এতে। নিদিষ্ট সময়ের বেশি অ্যাপটি ব‍্যবহার করতে গেলে নোটিফিকেশনে জানিয়ে দেয়া হবে।

গ্রুপ নোটিফিকেশন

লকস্ক্রিনে ফোনের নোটিফিকেশন গ্রুপ আকারে প্রদর্শিত হবে। অর্থাৎ ফেইসবুকের সব নোটিফিকেশন আলাদাভাবে নয় বরং একত্রে দেখা যাবে লক স্ক্রিনের নোটিফিকেশনে। কোনো অ্যাপের নোটিফিকেশন না চাইলে তা লক স্ক্রিন থেকেই বন্ধ করে রাখা যাবে।

অ্যাপল বুকস

অ্যাপলের বই পড়ার অ্যাপ আইবুকস নতুন রূপে হাজির হয়েছে আইওএস ১২ এ। আইবুকস থেকে নাম পরিবর্তন করে ‘অ্যাপল বুকস’ নাম দেয়া হয়েছে। ডিজাইনে আনা হয়েছে অনেক পরিবর্তন। এতে যুক্ত করা হয়েছে রিডিং নাউ, নতুন বুকস্টোর ও উন্নত সার্চ সুবিধা। এছাড়াও, এতে অডিও বুক শোনার সুবিধা মিলবে।এছাড়া নিউজ, স্টকস, ভয়েস মিমোস অ্যাপ আনা হয়েছে অ্যাপলের আইওএস ১২ এ। বুধবার থেকে ডেভেলপাররা ওএসটির বেটা সংস্করণ ব‍্যবহার করতে পারবেন। জুনের ২৬ তারিখ নাগাদ সব ব‍্যবহারকারীদের কাছে আপডেটটি পৌঁছে যাবে।