নকল গুগল ব্যবহার করছেন না তো?

নকল গুগল ব্যবহার করছেন না তো?

SHARE
Do you using copy Google?

ইন্টারনেটের যুগে সার্চ ইঞ্জিন ছাড়া ইন্টারনেট ব্যবহার করার কথা ভাবাই যায়না। তাইতো সার্চ ইঞ্জিনের অভাব নেই প্রযুক্তির এ যুগে। ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ওয়েব তথ্য খোঁজার জন্য পছন্দের সার্চ ইঞ্জিনের শীর্ষে তালিকার রয়েছে গুগল। নিরাপত্তার বিবেচনাতেও গুগলের ওপর প্রায় শতভাগ আস্থা থাকে প্রায় সবার। কিন্তু অজান্তেই নকল গুগল ব্যবহারের অভ্যাস তৈরি হয়ে যায় নি তো আমাদের? যে গুগল ব্যবহার করছেন সেটি আসল গুগল কি না, তা কি ভেবে দেখেছেন?

ওয়েব পোর্টাল দ্য নেক্সট ওয়েব সপ্তাহ খানেক আগে এক রহস্যময় ব্যাপার খুঁজে পায়। ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ভোট দেওয়ার আবেদন জানানো হচ্ছিল একটি ‘স্প্যাম’ প্রোগ্রাম দিয়ে। এতে খুব একটা অবাক হওয়ার কিছু নেই। অস্বাভাবিক বিষয় হলো, ওয়েবসাইটটির ঠিকানা গুগল ডটকম। সেই ওয়েবসাইট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগে ডোনাল্ড ট্রাম্পের হয়ে কাজ করছিল। সেখানে লেখা ছিল- ভোট ফর ট্রাম্প- ট্রাম্পকে ভোট দিন! আর এখন সেখানে লেখা রয়েছে- ট্রাম্প, ইউ ডিড ইট!

অ্যানালিটিক এজ নামের এক সংস্থাও প্রতিবেদন দিয়েছিল এই নকল গুগলের। নকল গুগল আর আসল গুগলের পার্থক্যটা খুবই সামান্য। আসল গুগলে গুগল.কম-এ জি অক্ষরটা লেখা বড় হাতে। নকল গুগলেও তাই, কিন্তু তার আকার আসলটার চেয়ে একটু ছোট। অ্যানালিটিক এজ জানিয়েছে, এটা আসলে একটা বিশেষ ল্যাটিন অক্ষর, যাকে ইউনিকোড ০২৬২ নামেও চিহ্নিত করা হয়।

অ্যানালিটিক এজ জানিয়েছে, স্প্যামার অর্থাৎ যারা স্প্যাম ছাড়ে ওয়েবসাইটে, তারাই মূলত এই ওয়েবসাইট বানিয়েছে। এ ধরনের স্প্যাম ব্যবহারকারীদের জন্য বড় ঝুঁকির কারণ হতে পারে। এমনকি আপনার ব্যবহৃত যন্ত্রে ম্যালওয়্যার ইনস্টল হয়ে যেতে পারে।