দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে পড়লো চীনা মহাকাশ পরীক্ষাগার

দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে পড়লো চীনা মহাকাশ পরীক্ষাগার

SHARE
China space lab comes down over South Pacific

পৃথিবীতে ভেঙে পড়েছে চীনের অকেজো মহাকাশ গবেষণাগার টিয়ানগং-১। আট টন ওজনের বিশাল এ মডিউল পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশের পর অধিকাংশ পুড়ে যায়। এরপর তা টুকরো হয়ে দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে পড়ে। সোমবার স্থানীয় সময় বেলা তিনটার দিকে স্পেস ল্যাবটি পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে ঢুকে পড়ে।

চীনের লক্ষ্য হচ্ছে ২০২২ সাল নাগাদ তারা মানুষের বসবাসের উপযোগী একটি মহাকাশ কেন্দ্র মহাশূন্যে পাঠাতে চায়। তিয়ানগং-১ ছিলো তারই পূর্ব প্রস্তুতি।

২০১১ সালে মহাকাশ স্টেশনে ডকিং সিস্টেমের পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য তিয়ানগং-১ নামের এই যানটি উৎক্ষেপণ করেছিল চীন। এর কয়েকবছর পর ৮ হাজার কেজি ওজনের এই স্টেশনটি বিকল হয়ে যায়। পরে যানটিকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করে চীন। তখন থেকেই এটি মহাকাশে ভাসমান অবস্থায় ছুটে বেড়াচ্ছে। প্রায় সাত বছর পর এটি এখন ধ্বংস হয়ে পৃথিবীতে আছড়ে পড়লো।

চীনা এবং ইউরোপীয় মহাকাশ বিজ্ঞানীরা আগে থেকেই ধারণা করছিলেন, সোমবার নাগাদ মহাকাশ কেন্দ্রটি পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করবে। তবে সায়েন্স ফিকশন সিনেমার মতো বড় ধরনের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হবেনা বলে আশ্বাস দেন চীনের মহাকাশ প্রকৌশল দফতর।

হার্ভার্ড-স্মিথসোনিয়ান সেন্টার ফর অ্যাস্ট্রোফিজিক্সের গবেষক জোনাথান ম্যাকডোয়েলের তথ্য অনুযায়ী, মানুষের তৈরি নিয়ন্ত্রণহীন ৫০তম বস্তু হিসেবে পৃথিবীতে পড়ল টিয়ানগং।