ত্বকের যত্নে গ্লিসারিনের ব্যবহার

ত্বকের যত্নে গ্লিসারিনের ব্যবহার

SHARE
Glycerin for skin

গ্লিসারিন এক ধরনের গন্ধহীন সুগার অ্যালকোহল। ত্বকের যত্নে এটি অতুলনীয়। সব ধরনের ত্বকেই মানিয়ে যায় এটি। শুধু তাই ই নয় এটি আমাদের ত্বককে পুনরুজ্জীবিত করে তোলে। গ্লিসারিন সরাসরি ত্বকে প্রয়োগ করা যায় অথবা মুখের প্যাক ও মুখের মাস্কের উপাদান হিসেবে ব্যবহার করা যায়। গ্লিসারিন ত্বকের জন্য খুব ভালো ময়েশ্চারাইজার। শুষ্ক, ছোপ পড়ে যাওয়া বিবর্ণ চামড়ার জন্য এটি বেশ কার্যকর। আসুন জেনে নিই ত্বকের যত্নে গ্লিসারিনের ব্যবহার সম্পর্কে-

গ্লিসারিন ত্বকের ব্রণ ও দাগ কমাতে সারাতে সাহায্য করে। এটার জন্য নিয়মিত রূপে গ্লিসারিন ব্যবহার করতে হয়। ব্রণের জায়গায় বা যেখানে দাগ আছে সেখানে ভালো করে গ্লিসারিন মাখুন। ধীরে ধীরে মুখের দাগগুলো মুছে যাবে এবং ত্বক পরিষ্কার হয়ে যাবে।

গ্লিসারিন ত্বকের ওপর থেকে ময়লা ও ধুলো সরিয়ে ত্বককে পরিষ্কার করে। গ্লিসারিনকে গোলাপ জলের সাথে মেশান এবং ত্বক পরিষ্কার করতে ব্যবহার করুন। রাতে শোওয়ার আগে গোলাপ জলে গ্লিসারিন মেশান। ভালো করে সেটা দিয়ে মুখ মুছুন। এটা নিয়মিত করুন যাতে চামড়া ভালো করে পরিষ্কার হয় ও বন্ধ কোষগুলো খোলে। এটা চামড়ার জন্য একটা খুবই উপকারী জিনিস।

গ্লিসারিন সরাসরি ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। একটা তুলোয় গ্লিসারিনে চুবিয়ে সেটা ত্বকের ওপর লাগান। গ্লিসারিন লাগানোর পরেই চামড়া নরম ও আর্দ্র থাকে।

ত্বকের পুষ্টি যোগাতে গ্লিসারিন খুব কার্যকর। তাই যে কোনো প্রসাধনীতে গ্লিসারিন ব্যবহার করা হয়। গ্লিসারিন ত্বকের পানির মাত্রা বা আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করে, যার ফলে চামড়া সুস্থ থাকে। গ্লিসারিনকে পুষ্টিদাতা হিসেবে ব্যবহার করতে গেলে আপনার দৈনন্দিন ব্যবহারের ময়েশ্চারাইজারের সাথে মিশিয়ে ব্যবহার করুন। মুখের প্যাক বা মাস্কে গ্লিসারিন যোগ করতে পারেন।

চর্মরোগ সারানোর ওষুধে বেশির ভাগ সময়ই গ্লিসারিন থাকে। নিয়মিত গ্লিসারিন ব্যবহার ত্বকের খুব ভালো যত্ন নেয়। তাই নিজের ত্বককে স্বাস্থ্যবান রাখতে নিয়মিত গ্লিসারিন ব্যবহার করুন।

LEAVE A REPLY