তরুণেরা ফেসবুক নয়, ঝুঁকছে ইউটিউবে

তরুণেরা ফেসবুক নয়, ঝুঁকছে ইউটিউবে

SHARE
Young people leave facebook for YouTube

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউব, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার, স্ন্যাপচ্যাট, হোয়াটস এপ মত এমন আরও অনেক জনপ্রিয় প্লাটফর্মে কম বেশি সময় দিচ্ছে তরুন প্রজন্ম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এই তালিকায় এতদিন শীর্ষে ছিল ফেসবুক। তবে সম্প্রতি একটি গবেষণায় দেখাগেছে, ফেসবুক থেকে সরে যাচ্ছে কিশোর তরুণরা। ফেসবুক ছেড়ে তারা ইউটিউবসহ অন্য সোশ্যাল মাধ্যমগুলোর দিকে ঝুঁকছে।

এমনটাই দাবি করছে গবেষণা প্রতিষ্ঠান পিউ রিসার্চ সেন্টার।

১৩ থেকে ১৭ বছরের কিশোরদের মধ্যে ফেসবুক এখন আর সবচেয়ে জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম নয়। তালিকার প্রথম তিনটির মধ্যেও নেই জাকারবার্গের ফেসবুক। তরুণরা এখন প্রচণ্ডভাবে ইউটিউবে ঝুঁকে পড়ছে। ৮৫ শতাংশই বলছে তারা ইউটিউব ব্যবহার করে। আর এরপরেই রয়েছে ইনস্টাগ্রাম এবং স্ন্যাপচ্যাট। সম্প্রতি এক গবেষণায় মিলেছে এমন তথ্য।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তরুণদের প্রবণতা নিয়ে গবেষণা করেন আমেরিকার কানসাস বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হুনজিন সো।

কেন তরুণরা ফেসবুক ছেড়ে ইনস্টাগ্রাম ও স্ন্যাপচ্যাটের দিকে ঝুঁকছে তার কতগুলো কারণ তিনি ব্যাখ্যা করেন-

  • বিভিন্ন বয়সের মানুষ এখন ফেসবুক ব্যবহার করে।বিশেষ করে তরুণদের বাবা-মা এবং গুরুজনদের অবস্থানের কারণে অনেক তরুণ-তরুণী এই প্লাটফর্ম ছেড়ে চলে যাচ্ছে। বন্ধুদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগের জন্য অনেকে আর ফেসবুক ব্যবহার করে না।
  • অনেক তরুণ জানান, তাদের সমবয়সী স্বজদের দেখার জন্য তারা ফেসবুকে ছবি পোস্ট করেন।
  • ইউটিউব, স্ন্যাপচ্যাট এবং ইনস্টাগ্রামের ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয়তার অন্যতম প্রধান কারণ হিসেবে মনে করা হচ্ছে, এসব প্ল্যাটফর্মে ছবি এবং ভিডিওর প্রাধান্য।

আমেরিকাতে কিশোর তরুণদের মধ্যে ফেসবুকের অবস্থান এখন চতুর্থ। ৫১ শতাংশ তরুণ-তরুণী এখনও ফেসবুক ব্যবহার করছে। কিন্তু ২০১৫ সাল থেকে ফেসবুক ২০ শতাংশ ব্যবহারকারী হারিয়েছে। তবে এখনও অপেক্ষাকৃত অসচ্ছল পরিবারের সন্তানদের কাছে ফেসবুকের আবেদন রয়েছে।