চুরি হলো নায়করাজের বাড়ির নামফলক

চুরি হলো নায়করাজের বাড়ির নামফলক

SHARE
Lokkhikunju

চুরি হয়ে গেছে সদ্যপ্রয়াত নায়করাজ রাজ্জাকের বাড়ির নামফলক। রাজধানীর গুলশান-২ এলাকার ৩৬ নম্বর সড়কের ‘লক্ষ্মীকুঞ্জ’ নামফলকটি শনিবার সকালে চুরি হয়ে যায়। তবে কে বা কারা চুরি করে নিয়ে গেছে তা জানা যায়নি। প্রিয়তমা স্ত্রীর নামের সঙ্গে মিলিয়ে বাসার বাসার নাম করণ করেন ‘লক্ষী কুঞ্জ’ । কিন্তু সকাল থেকে দেখা যাচ্ছেনা নাম ফলকটি। অর্থাৎ চুরি হলো নায়করাজের বাড়ির নামফলক

এদিকে দেশীয় সিনেমার কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাক মারা যাওয়ার ৪০ দিনের মাথায় চুরি হয়ে গেছে তার বাসার নামফলক। সোনালি পাতে কালো অক্ষরে লেখা নাম ফলক ছিল সেটি। লক্ষী কুঞ্জের অবস্থান রাজধানীর গুলশান ২ এর ৩৬ নং রোডে। বাড়ির নম্বর ৫। এতে বসবাস করছেন তার স্ত্রী, সন্তান আর নাতি-নাতনিরা।

নায়করাজের ছেলে খালেদ হোসাইন সম্রাট তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আজ সকালে উঠে দেখি আমাদের বাড়ির নেমপ্লটটা চুরি হয়ে গেছে। ভাগ্যিস বাড়ির গেটটা খুলে নিয়ে যায়নি…।’ (Aj sokale utthe dekhi amader barir nameplate ta churi hoye gechhe, vaggis barir gate ta khule niye jaini….)

নায়করাজ রাজ্জাক মারা যাওয়ার ৪০ দিন পূর্ণ হচ্ছে আজ। আজ তার চেহলাম অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সবাই যখন অনুষ্ঠান নিয়ে ব্যস্ত এরই মধ্যে এলো নামফলক চুরির খবর।

উল্লেখ্য, গত ২১ আগস্ট বাংলাদেশের কিংবদন্তি অভিনেতা নায়করাজ রাজ্জাক রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

রাজ্জাক নায়ক হিসাবে প্রথম ‘বেহুলা’ ছবিতে অভিনয় করেন। তার সর্বপ্রথম প্রযোজিত ছবি ‘আকাঙ্ক্ষা’ এবং পরিচালক হিসাবে প্রথম ছবি ‘অনন্ত প্রেম’। এ পর্যন্ত তার অভিনীত মোট ছবির সংখ্যা প্রায় ৫০০। রাজ্জাকের সেরা প্রাপ্তি ইউনিসেফের শুভেচ্ছা দূত হওয়া। তার খ্যাতি নায়ক রাজ রাজ্জাক।

তার উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে রয়েছে কি যে করি, অশিক্ষিত, বড় ভালো লোক ছিল, চন্দ্রনাথ, যোগাযোগ, ছুটির ঘণ্টা, বেঈমান, অনির্বাণ, স্লোগান, ঝড়ের পাখি, আলোর মিছিল, এখানে আকাশ নীল, অতিথি, অবাক পৃথিবী, মৌ চোর, বদনাম, আমি বাঁচতে চাই, কোটি টাকার ফকির।