চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গল

চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গল

SHARE
Srimangal - Tea capital of Bangladesh

৪৫০ কিলোমিটার আয়তনের শ্রীমঙ্গলকে বাংলাদেশের চায়ের রাজধানী বলা হয়। মাইলের পর মাইল বিস্তৃত চা বাগান দেখে মনে হবে যেন পাহাড়ের ঢালে সবুজ গালিচা বিছানো রয়েছে। এখানকার বেশকিছু চা বাগানের নজরকাড়া সৌন্দর্য পর্যটকদের সহজেই আকৃষ্ট করে। এখানে ছোট ছোট পাহাড়, পাহাড়ে চা বাগান, লেক, হাওর, ঝর্ণা কি নেই? সবচেয়ে বড় যেটা আছে, সেটা হল শান্তি। শহুরে, ব্যস্ত ধুলাবালি ভরা জীবন থেকে বেরিয়ে ছোট্ট একটা ট্যুরে ঘুরে আসতে পারেন এখানে।

ছোট বড় উঁচু-নিচু টিলার পাশ দিয়ে আঁকাবাঁকা সড়ক। সড়কের কোথাও উঁচু, কোথাও নিচু। যেনো দেশের ভেতর অন্যরকম এক দেশ। চায়ের দেশ, মেঘের দেশ, বন-বনানী, টিলা আর হাওরের দেশ এ শ্রীমঙ্গল। যেখানে বাস করে অনেকগুলো নৃ-তাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর মানুষ।

১৯টি চা বাগানের সতেজ সবুজ পাতায় পূর্ণ হয়ে আছে শ্রীমঙ্গলের নিসর্গশোভা। পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে এবং চায়ের রাজধানী হিসেবে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার খ্যাতি সর্বত্রই ছড়িয়ে পড়েছে। নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক দৃশ্য আর নৈসর্গিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি শ্রীমঙ্গল বেড়াতে যাওয়ার এখনই সময়। যদিও এখন বৃষ্টির সময়, তারপরও অ্যাডভেঞ্চার প্রিয়রা প্রস্তুতি নিয়ে বেরিয়ে পড়তে পারেন এ সময়। দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতটা এখানেই হয়ে থাকে। কপালে থাকলে বৃষ্টি দেখলেন, সঙ্গে চা-বাগানটাও ঘোরা হয়ে গেল।

শ্রীমঙ্গল যাবেন অথচ সাত রং চায়ের স্বাদ নেবেন না, তা কী করে হয়! একই গ্লাসের মধ্যে স্তরে স্তরে সাজানো সাত রং চা! তরল পানীয়কে কীভাবে সাত স্তরে সাজানো সম্ভব! ব্যাপারটি বিস্ময়েরই বটে। অর্ডার করলে গোপন ঘরে প্রস্তুত তৈরির পর সেই চা আপনাকে পরিবেশন করা হবে। প্রতি কাপের মূল্য ৭০-৯০ টাকা।

Srimangal - Tea capital of Bangladesh

সিলেটের চা বাগানের ভ্রমন যে কারো জন্যই হবে মনে রাখার মতো অভিজ্ঞতা। এই চা বাগানগুলো ইংরেজ রাজদের শাসনকালের স্মৃতি বহন করছে। ইংরেজরাই এখানে চা চাষের সূচনা করেছিল এবং সেই সময়ের মতো আজও চা বাগানের ম্যানেজারেরা কাঠের তৈরি সাদা রঙের ভবনে বাস করেন। চা বাগানের বাংলোগুলো চমৎকার করে সাজানো বিশাল বাগানের ওপর অবস্থিত। চা বাগানের জীবন যাত্রাও রয়েছে অনেকটা ইংরেজ আমলের মতই।

শ্রীমঙ্গলে দর্শনীয় স্থানসমূহ 

  • বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিটিআরআই)
  • লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান
  • বাইক্কা বিল
  • পশু-পাখি সেবাশ্রম
  • ভাড়াউড়া লেক
  • নিম্মাই শিববাড়ি
  • হাইল-হাওর
  • রামনগর মনিপুরী পাড়া
  • মাগুরছড়া খাসিয়াপুঞ্জি
  • পরিত্যক্ত গ্যাসকূপ
  • ডিনস্টন সিমেট্রি
  • জলপ্রপাত যজ্ঞকুঞ্জের ধারা
  • পাহাড় ডোবা লেক

কীভাবে যাবেন

ঢাকা থেকে বাসে অথবা ট্রেনে যাওয়া যায় শ্রীমঙ্গল। তবে বাসে যদি যান, রাস্তা ফাঁকা থাকলে ট্রেনের আগেই পৌঁছাবেন। ইউনিক, হানিফ, রূপসী বাংলাসহ বিভিন্ন বাস রয়েছে আরামবাগ, মহাখালী এবং সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে। সিলেট মেইল অথবা উপবনে করেও যাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে শ্রীমঙ্গলে। ট্রেনে ভাড়া ৩০০-৩৫০ (স্নিগ্ধা), ২৭০ (শোভন চেয়ার), ২০০ (শোভন)। বাসের ভাড়া ৪০০-৪৫০ টাকা।