খুব সহজে কমিয়ে ফেলুন চোখের ফোলাভাব

খুব সহজে কমিয়ে ফেলুন চোখের ফোলাভাব

SHARE
Eye region-swealing

আমাদের চেহারার মধ্যে অনেক বেশী গুরুত্বপূর্ণ হল চোখের সৌন্দর্য। কিন্তু যদি চোখের নিচেটা ফুলে থাকে এবং ফোলা ফোলা ভাব চলে আসে তাহলে দেখতে একটু খারাপই লাগে। চোখের কোল ফুলে যাওয়া সত্যিই খুব বিরক্তিকর। ক্লান্তি বা অন্য যে কোনো চোখের নিচে ফোলাভাব দেখা যেতে পারে।

চোখের ফোলাভাবের কারণ 

– অতিরিক্ত মানসিক চাপের কারণে চোখের নিচ ফুলে যায় অনেক বেশী।

– ঘুম কম হলে বা ঘুমের সমস্যা থেকে থাকলে চোখের নিচ ফুলে যায়। সুতরাং নিয়ম করে অবশ্যই ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমাতে হবে।

– অতিরিক্ত লবণাক্ত খাবার খাওয়ার কারণে দেহে পানি বেশী জমতে থাকে। এতে করেও অনেকের চোখের নিচে ফুলে যায়।

– সাইনাসের সমস্যা থাকলে চোখের নিচের ফোলাভাব বেড়ে যায়।

– পরিবারের সদস্যদের যদি এমন সমস্যা থাকে তাহলে সেটি আপনার জেনেটিক্যাল ব্যাপার, আর সে কারণেই আপনার চোখের নিচ ফোলা থাকতে পারে।

– অতিরিক্ত ধূমপান এবং মদ্যপানের কারণেও চোখের নিচ ফুলে থাকে।

 

প্রাকৃতিক উপকরণ দিয়েই কমানো যায় এই ফোলাভাব। খুব সহজে কমিয়ে ফেলুন চোখের ফোলাভাব, কীভাবে? আসুন জেনে নিই-

চোখের ফোলাভাব দূর করার উপায়

আলু:

আলুতে রয়েছে ‘ক্যাটেকোলেইস’ নামক উপাদান যা চোখের নিচের ফোলাভাব কমাতে সাহায্য করে। এর পুষ্টি উপাদান, ভিটামিন এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বক দৃঢ়, কোমল ও উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।

একটি মাঝারি মাপের আলু টুকরা করে কেটে তা রেফ্রিজারেইটরে ৩০ মিনিট রেখে দিন। চোখের ফোলা অংশের উপর টুকরা করা আলু রেখে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

শসা: এটি চোখের প্রদাহ কমায় এবং ত্বক টানটান রাখতে সাহায্য করে। শসার এনজাইম এবং অ্যাস্ট্রিনজেন্ট চোখ শীতল রাখতে সাহায্য করে।

একটি শসা পাতলা করে কেটে ২০ মিনিট রেফ্রিজারেইটরে রাখুন। এরপর চোখের উপর রেখে ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। দিনে কয়েকবার এই পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

ডিমের সাদা অংশ: চোখের চারপাশের ত্বক টানটান রাখতে ডিমের সাদা অংশ সাহায্য করে, এতে বলি রেখা কম দেখা যায়।

দুয়েকটি ডিমের সাদা অংশ ভালোভাবে ফেটে ব্রাশের সাহায্যে চোখের চারপাশে লাগান। ১০ মিনিট পরে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

দুধ: দুধের অ্যামিনো অ্যাসিড চোখের নিচে ফোলাভাব কমায় এবং ‘ফ্যাট’ চোখে আরাম অনুভব করতে সাহায্য করে। পাশাপাশি দুধ চোখের জলীয়ভাব রক্ষা করে।

দুটি তুলার প্যাড ঠাণ্ডা দুধে ভিজিয়ে চোখের উপরে রাখুন। ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।    

লবণ-গরম পানি: একটি বাটিতে কুসুম গরম পানি নিয়ে তাতে খানিকটা লবণ মেশান। এতে দুইটি তুলার বল ভিজিয়ে তা চোখের উপর দিয়ে রাখুন। তুলার বল ঠাণ্ডা হয়ে এলে তা আবার পানিতে ভিজিয়ে চোখের উপর দিন। আধ ঘণ্টা ধরে এই পদ্ধতি অনুসরণ করুন।