কর্মক্ষেত্রে ফিট থাকতে করণীয়

কর্মক্ষেত্রে ফিট থাকতে করণীয়

SHARE
work-place-fitness

আধুনিক জীবনযাত্রায় বেশিরভাগ সময় আমাদেরকে দীর্ঘসময় বসে থাকতে হয়। বিশেষ করে কর্মক্ষেত্রে। ডেস্কের সঙ্গে বাঁধা জীবন, কাজের চাপ, রাত জেগে কাজ করা ইত্যাদি ভবিষ্যতে স্বাস্থ্যের জন্য গুরুতর হুমকি। আসুন জেনে নিই কর্মক্ষেত্রে ফিট থাকতে করণীয় সম্পর্কে-

কর্মক্ষেত্রে কত কাণ্ডই না ঘটে! সেসব নিয়ে সহকর্মীরা গল্প ফাঁদেন। গল্পে একটু রং চড়ান। তারপর রসিয়ে রসিয়ে বলে বেড়ান। একান-ওকান করে একসময় তা রাষ্ট্র হয়ে যায়। এতে বিব্রত হন অনেকে। আর তাই কর্মক্ষেত্রে ফিট থাকতে মেনে চলুন কিছু ব্যাপার-

খাদ্যাভ্যাস: কী খাচ্ছেন সেদিকে মনোযোগী হতে হবে। অস্বাস্থ্যকর মুখরোচক খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন। রেস্তোরাঁয় খাওয়া কমিয়ে বাসার খাবার বেশি খাওয়ার চেষ্টা করতে হবে। আর সকালের নাস্তা বাদ দেওয়া যাবে না। অন্যথায় দুপুরে বাড়তি খাওয়ার ইচ্ছা অদম্য হয়ে উঠবে।

স্ন্যাকস: বিভিন্ন স্বাস্থ্যকর স্ন্যাকস যেমন বাদাম, ফল, পপকর্ণ, ওট বিস্কুট ইত্যাদি অল্প পরিমাণে কিছুক্ষণ পর পর খাওয়া উচিত। মানসিক চাপগ্রস্ত অবস্থায় খাওয়া চলবে না। কারণ, সাধারণত মানুষ মানসিক চাপে থাকলে বেশি খায়। আর অবশ্যই প্রচুর পরিমাণে পানি খেতে হবে।

হাঁটাহাঁটি: যতটা সম্ভব হাঁটতে হবে। মাঝে মধ্যে লিফটের বদলে সিঁড়ি বেয়ে অফিসে উঠতে হবে। দুপুরে খাওয়ার পর বাড়তি সময় পেলে হাঁটতে হবে। যারা নিজস্ব গাড়ি নিয়ে অফিসে যাওয়া-আসা করেন তারা সম্ভব গাড়িটি একটু দূরে পার্ক করুন যাতে কিছুদুর হাঁটতে হয়।  

এছাড়া কিছুক্ষণ পর পর কাজে বিরতি দিয়ে চোখের উপর চাপ কমাতে হবে। চেয়ার ছেড়ে উঠে শরীরটা টানটান করতে হবে। প্রয়োজন হলে মোবাইলে রিমাইন্ডার দিয়ে রাখতে হবে।

 

LEAVE A REPLY