এবার যৌবন বাড়াবে পালংশাক!

এবার যৌবন বাড়াবে পালংশাক!

SHARE
palong-shak-

পালং আমাদের অতি প্রয়োজনীয় শাক জাতীয় ফসল। ছোট থেকে বড় প্রায় সব বয়সী মানুষই এই শাক খেতে পারে। ঘরের আশেপাশে এক টুকরো জমিতে এর একটি ঢাল কেটে লাগালে ওখানেই এটি জন্মাতে পারে। ফলে দামেও এটা প্রচুর সস্তা। এরুপ সহজলভ্য হওয়ায় বাড়ির মা বোনেরা সহজেই এটা লাগিয়ে শাক ফলাতে পারে।

পালংশাক যেমন দামে সস্তা তেমনি পুষ্টিগুণেও ভরপুর। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও ক্যান্সার প্রতিরোধীরুপে ভূমিকা রাখায় পালংশাককে ‘সুপার ফুড’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। সবুজ পাতার এ শাক দ্রুত পেটের চর্বি কমাতে পারে।তাছাড়া এতে আছে ভিটামিন ও মিনারেল, উপরোন্ত ক্যালরি থাকে কম। স্মৃতিশক্তি দুর্বল ও অল্পতেই ভুলে যাওয়ার প্রবণতা দেখা দিলে নিয়ম করে পালং শাক খান। দেখবেন তা ম্যাজিকের মতো কাজ করছে।

শিকাগোর হেলথ ও এজিং প্রকল্পের প্রতিবেদন অনুযায়ী, পালং শাকে আছে প্রচুর পরিমাণে ফ্ল্যাভনয়েড উপাদান, যা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে। এটি মস্তিষ্ককে সতেজ রাখে, মস্তিষ্কের বয়স কমাতে সাহায্য করে। দীর্ঘদিন মস্তিষ্কের শক্তি অটুট রাখে। ফলে অনেক বেশি বয়স পর্যন্ত স্নায়ুতন্ত্র নির্ভুলভাবে কাজ করে। কৃত্রিমভাবে ক্যালসিয়াম বড়ি খাওয়া থেকে এই প্রাকৃতিক পালংশাক বিরাট ভূমিকা রাখে।

এছাড়া এতে আছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন ‘ই’ যা ভবিষ্যতে অ্যালঝাইমার্স হওয়ার শঙ্কা অনেকটাই কমিয়ে দেয়। জাপানের একদল বিজ্ঞানী এবং হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুল সম্প্রতি পালংশাকের উপর একটি গবেষণা চালায়। গবেষকদের দাবি, পালংশাকের ফ্ল্যাভনয়েড উপাদান নারীদের শরীরে অব্যর্থ ওষুধের কাজ করে। গর্ভাশয় ক্যান্সারের শঙ্কা প্রায় ৪০ শতাংশ কমে যায়। এছাড়া পালংশাকে প্রচুর পরিমানে থাকে ক্যারটিনয়েড, নিওজ্যানথিন যা প্রস্টেট ক্যানসারের কোষকে মেরে ফেলে পুরুষের প্রস্টেট ক্যানসারের হাত থেকে রক্ষা করে। শুধু মস্তিষ্ককে সুস্থ রাখা বা ক্যানসার প্রতিরোধই নয়, শরীরকে সুস্থ ও নীরোগ রাখতেও পালংশাকের কোনো জুড়ি নেই। তাছাড়া এতে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘এ’, যা চোখের ভেতরের ও বাইরের অংশগুলোয় পুষ্টি জোগায়; দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি করে এবং অকাল অন্ধত্ব থেকে চোখকে রক্ষা করে।

পালংশাকে আরও আছে প্রচুর পরিমাণে আয়রন। এটি মাতৃত্বকালীন ডায়াবেটিস থেকে শরীরকে রক্ষা করে। গর্ভকালীন সময়ে শিশুর মেধা বিকাশেও এই শাকের ভূমিকা অপরিসীম। এতে আছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন বি১, বি২, বি৩ ও বি৬, যা চুল পড়া রোধ করে ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

 

সুতরাং, আমাদের দৈনন্দিন জীবনে পালংশাকের ভূমিকা সহজেই অনুমেয়।